kalerkantho


ঘুমের বারোটা বাজায় এয়ার কন্ডিশনার?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৪৭



ঘুমের বারোটা বাজায় এয়ার কন্ডিশনার?

ঘুমের আরামদায়ক পরিবেশ তৈরি করতে এয়ার কন্ডিশনারের বাতাস প্রবাহের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে নিতে হয়। এক গবেষণায় বলা হয়, শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের যন্ত্র থেকে বাসাত সরাসরি দেহে লাগলে আপনার হৃদস্পন্দনের হার এবং ঘুমের ভঙ্গী বদলে যেতে পারে।

এনার্জি অ্যান্ড বিল্ডিংস জার্নারে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে এয়ার কন্ডিশনারের প্রভাব আলোচনা করা হয়েছে। পরীক্ষায় দেখা গেছে, একটি কক্ষে ০.১৪ মিটার/সেকেন্ড ভেলোসিটিতে এসি চললে সেখানে অবস্থানরত কোনো মানুষের হৃদস্পন্দন বেড়ে যায়। এ ছাড়া ঘুমের সময় তার জেগে যাওয়ার সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়। বিশেষ করে যাদের শারীরিক দুর্বলতা রয়েছে বা শীতল আবহাওয়ায় স্পর্শকাতর হয়ে ওঠেন, তাদের ঘুমের ওপর ব্যাপক প্রভাব ফেলে এয়ার কন্ডিশনার।

জাপানের টয়োহাশি উইনিভার্সিটি অব টেকনলজির গবেষকরা জানান, এয়ার কন্ডিশনার থেকে বের হওয়া বাতাস মানুষের ঘুমের ওপর প্রভাব বিস্তার করে। তার ঘুমের জন্য যে দৈহিক অবস্থা দরকার তাতেও বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। এমনকি সবচেয়ে কম পরিমাণে বাসাতের প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করা হলেও তা ঘটে।

তাই বলা যায়, ঘুমের গুণগত মান এবং ব্যক্তির অনুভূতির ওপর  শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের যন্ত্র অনিচ্ছাকৃত নেতিবাচক প্রভাব ফেলে থাকে।

প্রধান গবেষক কাজুয়ো সুজুকি দুটো কক্ষে অংশগ্রহণকারীদের ওপর গবেষণা চালান।

দুটো কক্ষে এসির ভিন্ন মাত্রার বায়ু প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করা হয়। পরে ঘুমের গভীরতা এবং দেহের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হয় ইলেক্ট্রোএন্সেফালোগ্রামের (ইইজি) মাধ্যমে।

দুই মাত্রার বায়ু প্রবাহের মাধ্যমে পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়। সাধারণ এসি যার ভেলেসিটি ছিল ০.১৪ মিটার/সেকেন্ড। আরেকটি বিশেষভাবে বানানো এসি যার ভেলোসিটি ছিল ০.০৪ মিটার/সেকেন্ড। দুটো কক্ষেই ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রাখা হয়।

উচ্চ মাত্রার বায়ু প্রবাহে ঘুমন্ত বা জেগে থাকা অবস্থায় অংশগ্রহণকারীরা শীতল অনুভূতি পাচ্ছিলেন। তবে এ ক্ষেত্রে ঘুমের আগে অংশগ্রহণকারীদের আরামদায়ক অবস্থা, ঘুমের কাল, ত্বকের তাপমাত্রা, অন্ত্রের তাপমাত্রা এবং উষ্ণতা বা শীতলতার অনুভূতির পরিমাপে বিশেষ কোনো পার্থক্য দেখা যায়নি।

এ গবেষণার মাধ্যমে অন্তত একটি বিষয় পরিষ্কার করা যায়। যারা এসি ব্যবহার করেন, সুষ্ঠু ও আরামদায়ক ঘুমের জন্য এসির বাতাসের প্রবাহ কতটুকু রাখা উচিত সে সম্পর্কে তাদের ধারণা মিলবে। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

 


মন্তব্য