kalerkantho


সাফল্য লাভে নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপনে গবেষণালব্ধ চার পরামর্শ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:৩৭



সাফল্য লাভে নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপনে গবেষণালব্ধ চার পরামর্শ

আমাদেরকে বারবার একটি বইকে এর কভার পেজ বা মোড়ক দিয়ে বিবেচনা না করতেই বলা হয়। অথচ বাস্তব হলো লোকে মোড়ক দেখেই বই সম্পর্কে মূল্যায়ন করে থাকে। তেমনি লোকে আপনাকে আপনার চেহারা সুরৎ দেখেই মূল্যায়ন করবে।
১৯৭২ সালে ড. এলেন বার্সচিড পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা যায়, লোকে সাধারণত দেখতে সুন্দর লোকদেরকেই দেখতে অসুন্দর লোকদের চেয়ে বেশি সক্ষম মনে করেন।

গবেষণায় আরো দেখা গেছে, শারীরিকভাবে দেখতে সুন্দর লোকদেরকে বেশি বিশ্বস্ত ভাবার প্রবণতা আমাদের মজ্জাগত। ২০১৬ সালে ফেঙলিং মা’র এক গবেষণায়ও এর প্রমাণ পাওয়া গেছে। এতে দেখা যায়, শিশুরা মূলত শারীরিকিভাবে দেখতে আকর্ষণীয় লোকদেরকেই অনাকর্ষণীয় লোকদের তুলনায় বেশি বিশ্বাস করেন।

লুক এতটাই শক্তিশালী যে গবেষণায় দেখা গেছে, কোনো রাজনীতিবিদের চেহারায় মাত্র এক সেকেন্ড তাকিয়ে থেকেই লোকে বলে দিতে পারেন তিনি নির্বাচনে জিতবেন কিনা। আর ৭০% ক্ষেত্রেই এই অনুমান সত্য হয়।

এখন কথা হলো দেখতে ভালো হওয়াটা শুধু ভালো বংশগতির বৈশিষ্ট্যের বিষয় নয়। আপনি নিজেকে ভালো পোশাক-আশাক পরিয়েও আপনার চেহারা দেখতে সুন্দর করে উপস্থাপন করতে পারেন।

কীভাবে আপনি নিজেকে দেখতে সুন্দর করে উপস্থাপন করবেন এখানে রইল সে সম্পর্কিত গবেষণালব্ধ চারটি পরামর্শ:
১. 'পাওয়ার পোজ' দিতে শিখুন
নিজেকে আরো আকর্ষণীয় এবং সক্ষম হিসেবে উপস্থাপনের সবচেয়ে কার্যকর উপায়গুলোর একটি হলো ভালো অঙ্গবিন্যাস। গবেষণায় দেখা গেছে, ভালো অঙ্গভঙ্গি শুধু আবেগ বহন করে না বরং এটি যে আবেগ বহন করে তার তীব্রতা সম্পর্কিত ধারণাকেও প্রভাবিত করে। সঠিক অঙ্গভঙ্গি আপনাকে আরো বেশি আত্মবিশ্বাসী দেখাতে পারে। যার ফলে আপনার আকর্ষণীয়তাও বেড়ে যাবে। আর এতে লোকের আপনাকে বিশ্বাস করার প্রবণতাও বাড়বে।

পাওয়ার পোজ দেওয়ার জন্য আপনি যা করতে পারেন- পশ্চাদ্দেশের ওপর নিজের হাতগুলো রেখে দাঁড়াতে পারেন, বা চেয়ারে হেলান দিয়ে দাঁড়াতে পারেন। এই শরীরচর্চা করতে মাত্র দুই মিনিট সময় লাগে। আর দুই মিনিটের পাওয়ার পোজেই আপনার আত্মবিশ্বাস বেড়ে যাবে কয়েকগুণ এবং আপনি সাফল্যের পথে এগিয়ে যাবেন।

২. ঘুম হারাবেন না
গবেষণায় দেখা গেছে, সাধারণত একজন প্রাপ্তবয়স্ক লোকের প্রতিরাতে সাত থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুম দরকার হয়। কিন্তু এর কম ঘুমালে লোকের চেহারা-সুরতের ওপরও তার প্রভাব পড়ে। যারা পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে পারেন না তাদেরকে যারা পর্যাপ্ত ঘুমান তাদের তুলনায় বেশি বিষণ্ন মনে হয়। আর লোকেই সহজেই তা দেখতে পারেন।

৩. আপনার উচ্চতাকে অগ্রাহ্য করবেন না
হ্যাঁ, এটা সত্য যে অনেকে 'লম্বা জিনের' কারণে এমনিতেই লম্বা হয়ে থাকেন। কিন্তু এর ফলে তারা অন্যায্য সুবিধা পেয়ে থাকেন। ২০১২ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে লম্বা লোকদেরকেই বেশি ব্যবস্থাপনা পর্যায়ের পদে নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকে।

তবে নিজের উচ্চতা বাড়াতে আপনার করার তেমন কিছুই নেই। অবশ্য সঠিক দেহভঙ্গির মাধ্যমে আপনি নিজেকে আরো লম্বা দেখিয়ে উপস্থাপন করতে পারেন। যেমনটা এর আগে বলা হয়েছে। এ ছাড়া আপনি উঁচু হিলের জুতা পরেও নিজেকে আরেকটু লম্বা করে উপস্থাপন করতে পারেন। বিশেষকরে চাকরির ইন্টারভিউয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ উপলক্ষে উঁচু হিলের জুতা পরুন।

৪. সুন্দর হাসি দিন এবং চোখে চোখ রেখে কথা বলুন
আপনি দেখতে যত আকর্ষণীয়ই হোন না কেন দিনশেষে এমনও দেখা যেতে পারে যে, আপনার চেয়ে দেখতে কম আকর্ষণীয়রাই বেশি সাফল্য অর্জন করছে। এর কারণ হয়ত তারা সুন্দর করে হাসতে জানেন এবং সরাসরি চোখে চোখ রেখে কথা বলেন। এই দুটি কাজের ক্ষমতাকে আপনি অবমূল্যায়ন করতে পারেন না।

গবেষণায় দেখা গেছে, সুন্দর হাঁসি এবং চোখে চোখ রেখে কথা বলার সক্ষমতা থাকলে সহজেই মেয়েদের মন জয় করা যায়।

সুতরাং কারো ব্যবসায়িক বা ব্যক্তিগত উদ্দেশ্যে কথা বলার সময় অবশ্যই সুন্দর হাসি দেবেন এবং চোখে চোখ রেখে কথা বলবেন।

চোখাচোখি করলে আপনাকে আরো বেশি আকর্ষণীয় লাগবে এবং বেশি আত্মবিশ্বাসী মনে হবে। যা আপনাকে আরো সফল করবে।

আমরা হয়ত আমাদের জিনগত বৈশিষ্ট্য বা বংশগতি বদালাতে পরব না। কিন্তু নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপনের মাধ্যমে আমরা অনেক কিছুই করতে পারি। আমাদের প্রত্যাশা এই পরামর্শুগুলো মেনে চললে আপনি নিজেকে আরো বেশি আকর্ষণীয় এবং ফলত আরো বেশি সক্ষম, এবং সাফল্যের পথে নিজেকে কার্যকরভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন।
সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার


মন্তব্য