kalerkantho


লোকে আপনাকে গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করছেনা? মেকাবিলার ১৪ উপায়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১১:৪৫



লোকে আপনাকে গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করছেনা? মেকাবিলার ১৪ উপায়

আপনি কি লোকে আপনাকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় না নেওয়ার সমস্যায় ভুগছেন? অসংখ্য অযৌক্তিক কারণে লোকে আপনাকে ডিসমিস করে দিতে পারে- আপনার বয়স (খুব বেশি তরুণ বা বৃদ্ধ), বর্ণ, লিঙ্গ, গলার স্বর, উচ্চতা প্রভৃতি।
আবার এমনও হতে পারে আপনার কর্মকাণ্ডের কারণেই লোকে আপনাকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নেয় না। আপনি হয়তো কোনো অনুপযুক্ত মন্তব্য করলেন বা গুরুত্বপূর্ণ কোনো বৈঠকে হাজির থাকতে না পারার কারণেই লোকে আপনাকে আর গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছে না।
কারণ যাই হোক না কেন, আপনাকে যদি অন্যরা গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় না নেয় তাহলে আপনার নিজেকেই সেই সমস্যার সমাধান করতে হবে। এখানে রইল এ সংক্রান্ত ১৪টি পরামর্শ:
১. সবসময়ই হালনাগাদ তথ্য সম্পর্কে অবগত থাকুন
এমনভাবে কথা বলুন যাতে লোকে বিশ্বাস করে আপনি যা বলছেন তা আপনার জানা আছে এবং আপনার বলার মতো কিছু আছে। যাতে অন্যরা আপনার কথা শুনতে পছন্দ করে। শুধু বুদ্ধিমান হলেই চলবে না। তথ্য হলো ক্ষমতার উৎস। আর তথ্য জানা থাকলে লোকে আপনাকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিবেন।
২. মূল্য যোগ করুন
যে বিষয়ে কথা হচ্ছে সে বিষয়ে নতুন মূল্য যোগ করতে পারলেই শুধু কথা বলুন। সত্যিকার অর্থেই সহায়ক ধারণা বা বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে অবদান রাখার উপায় সম্পর্কে ভাবুন।


৩. সত্যবাদি এবং নির্ভেজাল হউন
অন্যদের কাছে নিশ্চিতভাবে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচিত বা গৃহীত হওয়ার জন্য সত্যবাদি এবং প্রামাণিক হন। এগুলো এমন গুন যা সচরাচর দেখা যায় না।
৪. প্রতিশ্রুতি পুরণ করুন
আপনি যদি অন্যদের কাছে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচিত হতে চান তাহলে সবসময়ই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করুন। এমন কোনো প্রতিশ্রুতি দিবেন না যেটি পালনে আপনি ১০০% দৃঢ়প্রতিজ্ঞ নন। কেননা, আস্থা হলো সকল সম্পর্কের মূলভিত্তি।
৫. স্পষ্টবাদি এবং সংক্ষিপ্ত হউন
আপনি যেসব কথা বলেন এবং কীভাবে সেসব কথা বলেন তা আপনার যোগ্যতা ও সক্ষমতার প্রধান নির্দেশক। সুতরাং দ্রুত যথাযথ পয়েন্টে কথা বলা শিখুন। অপ্রয়োজনীয় বিষয়গুলো এড়িয়ে যান।
৬. সাফল্যের জন্য দৃঢ়চেতা হউন
আপনি কীভাবে নিজের উপস্থিতি জানান দেন তা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি নিজে যখন নিজেকে গুরুত্ব দিবেন তখন অন্যরাও আপনাকে গুরুত্ব দিবেন। সুতরাং নিজের উপস্থিতি জানান দেওয়ার জন্য আপনার উপস্থিতিকে প্রভাব সৃষ্টিকারী করে তুলুন। এবং এর মধ্য দিয়ে সাফল্য অর্জনের চেষ্টা করুন।
৭. বর্ণনাযোগ্য হউন
এমন সব গল্প বলুন যেগুলো আপনাকে অন্যদের কাছে বর্ণনাযোগ্য করে তুলবে। আপনি কে এবং আপনি কী জানেন সে ব্যাপারে তাদের মধ্যে সম্ভ্রম জাগিয়ে তুলুন। লোককে নিজের দিকে টেনে আনুন এবং আপনার সঙ্গে অনুরণিত করুন।
৮. ভালো পোশাক পরুন
আপনি যে সাফল্য অর্জনে করতে চাইছেন তার সহায়ক হবে এমন পোশাক পরুন। আজকাল লোকে সাধারণত আরো বেশি ক্যাজুয়াল ভাবে পোশাক পরতেই বেশি পছন্দ করেন। এমন এক যুগেও আপনি এমনভাবে পোশাক পরুন যাতে লোকে মনে করেন যে আপনি নিজেও নিজেকে গুরুত্বের সঙ্গে বিচেনায় নিয়েছেন। আপনি যখন সুন্দরভাবে পোশাক পরবেন লোকে আপনাকে নিয়ে ভাববেও সুন্দরভাবে।
৯. কথা বলার স্বরের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন
আমাদের গলার স্বরই আমাদের ব্যাপারে সত্যটি বলে দেয়। এমনকি যখন আমাদের শব্দগুলোও তা প্রকাশ করতে পারে না তখনও গলার স্বরই তা করে। এমনকি এ ব্যাপারে আমরা নিজেরা হয়তো অসচেতন থাকতে পারি। সুতরাং সবসময়ই নিজের গলার স্বরের প্রতি মনোযোগ দিন কেননা আপনার গলার স্বরের পরিপ্রেক্ষিতেই লোকে আপনার প্রতি প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করবেন।
১০. নিশ্চয়তার সঙ্গে কথা বলুন
কথা বলার সময় আপনার শব্দগুলো আত্মবিশ্বাস বহন করছে কিনা তা নিশ্চিত করুন। একটি সচরাচর কণ্ঠ অভ্যাস হলো প্রতিটি বাক্যের শেষ অংশ ক্রমবর্ধমান স্বরভঙ্গির সঙ্গে উপস্থাপন করা। যেনবা তা একটি প্রশ্ন ছিল। এতে আপনাকে পরীক্ষামূলক এবং অনিশ্চিত শোনাবে। আপনিও যদি এমনটা করে থাকেন তাহলে এটি দূর করার জন্য আপনার নিজেকে প্রশিক্ষিত করে তোলা দরকার।
১১. ভালো শ্রোতা হউন
লোককে আকৃষ্ট করার জন্য শুধু নিজের কথা বলতে থাকার অভ্যাস ত্যাগ করুন এবং মনোযোগী শ্রোতা হয়ে উঠুন। অন্যদেরকেও তাদের কথা বলার সুযোগ করে দিন। অন্যদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনলে আপনি সহজেই তাদের আস্থা ও সম্মান অর্জন করতে পারবেন।
১২. শ্রদ্ধাশীল হউন
আপনি নিজে অন্যদের কাছ থেকে যেমন আচরণ পেতে চান অন্যদের সঙ্গেও তেমনই আচরণ করলে লোকে আপনাকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিবেন এবং গ্রহন করবেন। আপনি অন্যকে সম্মান প্রদর্শন করলে অন্যরাও আপনাকে সম্মান করবে। আপনাকে হয়তো সবসময়ই একই মতামত শেয়ার করতে হবে না কিন্তু আপনাকে সবসময়ই শ্রদ্ধাশীল হতে হবে।
১৩. সবসময়, সবসময়ই সঠিক সময়ে উপস্থিত হউন
সঠিক সময়ে উপস্থিত থাকার মাধ্যমে আপনি অন্যদেরকে বুঝাতের পারবেন যে আপনি সময়ের মূল্য জানেন। আর দেরি করে পৌঁছালে লোকে বুঝবে আপনি অন্যদের চেয়ে শুধু নিজেকেই বেশি গুরুত্ব দেন। আপনি যদি বারবার দেরি করেন তাহলে লোকে আপনাকে চির অভদ্র মনে করবে।
১৪. আত্মবিশ্বাসী হউন
আত্মবিশ্বাস অন্যদের ওপর প্রভাব বিস্তারের বিস্ময়করভাবে কার্যকর উপায়। আপনি যদি অন্যদের কাছে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচিত হতে চাওয়ার বিষয়ে সত্যিই আন্তরিক হয়ে থাকেন তাহলে আত্মবিশ্বাস প্রদর্শন করুন। আর এর মধ্য দিয়ে নিজেকে মেলে ধরুন
সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

 


মন্তব্য