kalerkantho


প্রতিদিন যে কারণে ৮ গ্লাস পানি পান করা জরুরি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



প্রতিদিন যে কারণে ৮ গ্লাস পানি পান করা জরুরি

সেই ছোট বেলা থেকে শুনে আসছি দিনে কম করে ৮ গ্লাস পানি পান করা উচিত। মা বার বার বলতেন, তাই এখনও ভালো ছেলের মতো রোজ ৮ গ্রাস পানি পান করে থাকি।

কিন্তু কেন বলুন তো এই পরিমাণ পানি খেতে হয়? না খেলেই বা কী হয়? মানব শরীরের প্রায় ৬৫ শতাংশ পানি দিয়ে তৈরি। তাই তো নিদির্ষ্ট পরিমাণ পানি পান না করলে শরীরের নানা কাজে বাঁধা আসে। ফলে দেখা দেয় নানা রোগ। আর তাছাড়া সেই আদি কাল থেকে দিনে ৮ গ্লাস পানি খাওয়ার নিয়ম চালু রয়েছে। তাই এই নিয়ম মানলে যে কোনও ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে, এমনটা ভেবে নেয়ার কোনও কারণ নেই। শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দিলে শরীর শুকতে শুরু করে। আর এমনটা হলে ক্লান্তি, মাথা যন্ত্রণা, মাথা ঘোরা, শরীরের নানা জায়গায় ভীষণ যন্ত্রণা, অঙ্গ কাজ করা বন্ধ করে দেওয়া সহ মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। তাই আর দেরি না করে জেনে নিন দৈনিক ৮ গ্লাস পানি পান আদৌ জরুরি কিনা।  

১: ২০০২ সালে এই বিষয়ের উপর একটি গবেষণা হয়েছিল।

তাতে অংশ গ্রহণ করা সুস্থ মানুষদের উপর পরীক্ষা করে দেখা হয়েছিল দৈনিক ৮ গ্লাস পানি খাওয়া প্রয়োজনীয়তা আদৌ আছে কিনা।  
২: দুটি দলের উপর চালানো হয়েছিল এই গবেষণা। একটা দলকে দিনে ৮ গ্রাস পানি খেতে বলা হয়েছিল। আর আরেকটা দলকে বলা হয়েছিল যখনই তৃষ্ণা পাবে, পানি খাবেন। কোনও নিয়ম মেনে পানি খেতে হবে না।  
৩: কয়েক মাস ধরে চলা এই গবেষণার পর বিশেষজ্ঞরা এর রিপোর্ট পর্যালোচনা করা শুরু করেন।  
৪: দেখা যায় যারা ৮ গ্লাস পানি পান করেছিলেন যারা, তাদের শারীরিক অবস্থা অন্য আরেকটি দলের সদস্যদের মতোই। দুই দলের মধ্যে শরীরগত দিক থেকে কোনও পার্থক্য হয় নি।  
৫: সবশেষে বলতেই হয় যে, দিনে ৮ গ্লাস পানি পান করতেই হবে, এমন কোনো দেওয়াল লিখন নেই। যখন তৃষ্ণা পাবে, তখন যতটা ইচ্ছা পানিপান করুন। তাহলেই সুস্থ থাকবেন।  
৬: বেশি বা কম, কোনোটাই ভালো নয়। বেশি পানি খেলেও অসুবিধা হতে পারে, আবার কম খেলেও দেখা দিতে পারে ডিইহাইড্রেশনের মতো  সমস্যা। তাই এক্ষেত্রে একটাই নিয়ম মেনে চলুন তৃষ্ণা পাবে যখন পানি খান। নাহলে এই নিয়ে ভাবার কোনও প্রয়োজন নেই।


মন্তব্য