kalerkantho


সঙ্গীকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:০৩



সঙ্গীকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন?

আপনার মনের মানুষকে নিয়ে নজরদারির কি কোনো দরকার আছে? যে আপনার নিজের, গোটা দুনিয়াকে না দেখালেও তো আপনারই থাকবে। আপনার সম্পর্কের ভিত তো আর পাঁচটা লোকের অনুমোদনের উপর দাঁড়িয়ে নেই। তবু এমন অনেক কাপল আছেন যাঁরা, দিনের অধিকাংশ সময়ই মনের মানুষটির সঙ্গে তুলে রাখা বিভিন্ন মুহূর্ত শেয়ার করে চলেন সোশ্যাল সাইটে। যা একদম ব্যক্তিগত, তাঁকে তুলে আনেন ‘দেওয়াল’ লিখনে। জানেন, গবেষকরা বলছেন ব্যক্তিগত জীবনে যারা অসুখী বা সঙ্গীকে নিয়ে ইনসিকিওরিটিতে ভোগেন তাঁরাই নিজের প্রেমিক-প্রেমিকা বা স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে কাটানো একান্ত ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলি দিনভর পাবলিক করে চলেন। উল্টোদিকে যাঁরা নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে আত্মবিশ্বাসী, তাঁরা বাইরের লোকের কাছ থেকে নিজের লাভলাইফ বা পার্সোনাল লাইফকে দূরে সরিয়ে রাখতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য।

Mail online কে দেয়া একটি সাক্ষাৎকারে সেক্সোলজিস্ট নিক্কি গোল্ডস্টেইন জানান, অন্যরা তাদের সম্পর্ক নিয়ে ঠিক কী ভাবছে, তা জানতে অনেকে ঘনঘন নিজেদের ফটো পোস্ট করে। গোল্ডস্টেইনের মতে, যখন সম্পর্কে টানাপোড়েন চলে, তখনই তৃতীয় ব্যক্তির মতামত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। শুধু সম্পর্কের টানাপোড়েন থেকেই নয়, অনেকে নিরাপত্তাহীনতা থেকেও মনের মানুষের সঙ্গে কাটানো সময়গুলি সকলের সামনে বারবার তুলে ধরতে চান। এভাবে তাঁরা বোঝানোর চেষ্টা করে, ‘আমরা ভাল আছি। ’ কিন্তু আপনি যখন ভাল আছেন, তাহলে লোক দেখানোর কী দরকার?

অনেকে বলেন, কথায় কথায় কাপল-ছবি পোস্ট করা আসলে পার্টনারের প্রতি অধিকারবোধ ফলানোর চেষ্টা।

অনেকে মনে করেন, পার্টনার আমার হাতের মুঠোয়, এমনটাও ফলানোর চেষ্টা করেন কেউ কেউ। সম্প্রতি Personality and Social Psychology Bulletin একটি রিপোর্ট পেশ করেছে। যেখানে বলা হয়েছে, অনলাইনে যেসব কাপল তাদের ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলি তুলে ধরতে সবসময় ব্যস্ত থাকেন, তাঁদের বেশিরভাগই নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে।

আচ্ছা! আপনার মনে এমন কিছু ঘুরপাক খাচ্ছে না তো? আমাদের জবাব দিতে হবে না। নিজের মনের কাছে জবাবদিহি করুন। আর সত্যি যদি তেমনটা হয়, প্লিজ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দু’জনে কথা বলে সব ভুল বোঝাবুঝি ঝেড়ে ফেলুন। ভালোবাসার মানুষকে নিয়ে সারাজীবন ভাল থাকতে হবে তো না কি?

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


মন্তব্য