kalerkantho


ফুটবলের আঘাতও বিপজ্জনক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৪:৫৪



ফুটবলের আঘাতও বিপজ্জনক

ফুটবল খেলায় আঘাতে হতে পারে বড় সমস্যা। আর তাই  ফুটবল খেলার আঘাতকে সহজভাবে নেওয়া উচিত নয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানা গেছে, ফুটবল খেলতে গিয়ে আঘাতের কারণে মস্তিষ্কে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে। আর এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ হলো হেড করা। ফুটবলে হেড করার কারণে বহু খেলোয়াড়ের মাথার ইনজুরিতে পড়তে হয়েছে। এ ছাড়া আরেকটি বিপজ্জনক বিষয় হলো, খেলার সময় একে অন্যের গায়ে ধাক্কা লাগা। এতেও যথেষ্ট ক্ষয়ক্ষতি হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খেলার সময় শরীরের যেকোনো অংশেই একজন ফুটবলার আঘাত পেতে পারেন। তবে সবচেয়ে বিপদজ্জনক হচ্ছে মাথায় আঘাত পাওয়াটা। খেলার মাঠে মাথায় আঘাত পেয়ে মাঠেই অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার ঘটনা অহরহ ফুটবলে ঘটে থাকে।

মাথায় আঘাত পেয়ে মারা যাওয়ারও নজির রয়েছে। অনেক সময় মাথায় আঘাত পেয়ে খেলোয়াড়দের এলোমেলো কথা বলতে দেখা যায়। যার নজির রয়েছে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে। সে সময় আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জার্মানির খেলোয়াড় ক্রিস্টফ ক্রামার মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন। এরপর সাময়িকভাবে স্মৃতিশক্তি হারিয়ে যাওয়ায় তিনি ঠিক বুঝতে পারছিলেন না। এরপর তিনি রেফারিকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, 'এটা কি ফাইনাল ম্যাচ?'

আমেরিকান ফুটবল খেলোয়াড়েরা সামনে ঝুঁকে মাথায় বল লাগানোর অভ্যাস করে। আর এতে আঘাতপ্রাপ্তির ঘটনাও প্রচুর ঘটে।

ফুটবল মাঠের আঘাতে কোন ধরনের সমস্যা হতে পারে? এ প্রসঙ্গে সাম্প্রতিক এক গবেষণার ভিত্তিতে গবেষকরা জানিয়েছেন, এতে মস্তিষ্কের নানা ধরনের সমস্যা হতে পারে। এমনকি স্মৃতিশক্তি বিধ্বংসী সমস্যা হওয়াও অস্বাভাবিক নয়। এমনকি ব্রেন ড্যামেজের ঘটনাও ঘটতে পারে।

পেশাদার খেলোয়াড়দের তুলনায় সৌখিন বা অপেশাদার খেলোয়াড়দের এসব সমস্যা বেশি হয়।

এ বিষয়ে একটি গবেষণা করছেন আলবার্ট আইনস্টাইন কলেজ অব মেডিসিন ও নিউ ইয়র্কের মন্টেফিওর হেলথ সিস্টেমের গবেষকরা। গবেষণাপত্রটির সিনিয়র লেখক ড. মাইকেল লিপটন বলেন, 'এখানে এটা বলাই যথেষ্ট যে, এতে ঝুঁকি রয়েছে। '

এ বিষয়ে গবেষণার জন্য ৪৭০টি জরিপের সহায়তা নেওয়া হয়। এতে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তাদের ৮০ শতাংশই ছিলেন পুরুষ। এতে দেখা যায়, ৩৭ শতাংশ পুরুষ ফুটবল খেলার সময় দুর্ঘটনাক্রমে মাথায় আঘাত পান। এ ছাড়া ৪৩ শতাংশ জানান, তাদের অজান্তেই মাথায় বল লেগে যায়। এ ছাড়া ২০ শতাংশ জানান, মাথায় আঘাতের কারণে তাদের মাথায় কমবেশি নানা ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে।

ফুটবলের আঘাতের ফলে তাৎক্ষণিকভাবেই নানা ধরনের সমস্যা দেখা যায়। দীর্ঘমেয়াদে আরও বহু সমস্যা হয়ে থাকে, যা এ গবেষণায় তুলে ধরা হয়নি বলে জানান গবেষকরা।

এ বিষয়ে গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে নিউরোলজি জার্নালে।


মন্তব্য