kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিভিন্ন প্রকার লবণ সম্পর্কে জেনে নিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০৯:৫৯



বিভিন্ন প্রকার লবণ সম্পর্কে জেনে নিন

অনেক সময় খাবারের সঙ্গে এক চিমটি লবণ মিশিয়ে নিলে তা ভালো ফল দেয়। অথবা আরো কয়েক চিমটি।

তবে অতিরিক্ত লবণ আবার ক্ষতিকরও হতে পারে। একদিনে ৩ গ্রাম বা এক চা চামচের চেয়ে একটু কম পরিমাণ লবণের চেয়ে বেশি খাওয়া ঠিক নয়।

কিন্তু একেবারে লবণ ছাড়া আবার চলবেও না। প্রতিদিনই আমাদের সামান্য পরিমাণ লবণ বা সোডিয়াম দরকার। আমাদের দেহের তরলের ভারসাম্য রক্ষার জন্য সোডিয়াম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি মাংসপেশির সংকোচন এবং শিথিলকরণে সহায়তার জন্য স্নায়বিক স্পন্দন প্রেরণ করে।

বাজারে কোন কোন ধরনের লবণ পাওয়া যায়? এবং তাদের মধ্যে পার্থক্যগুলো কী? এখানে রইল এ সম্পর্কিত কিছু বাস্তব তথ্য-উপাত্ত :

সামুদ্রিক লবণ বা কেল্টিক সামুদ্রিক লবণ
এটি একটি অপরিশুদ্ধ, অপ্রক্রিয়াজাতকৃত লবণ। এর গন্ধও অনন্য। সামুদ্রিক লবণ সমুদ্রের পানিকে বাষ্পীভূত করে উৎপাদন করা হয়।

পাথুরে লবণ বা হিমালয়ের গোলাপি লবণ
'কালা নামাক' নামে অপরিশোধিত লবণ পানির এই কাঁচামাল পাওয়া যায় হিমালয় পার্বত্য অঞ্চলে। এই লবণ ব্যবহারে যা কিছুই প্রস্তুত করা হোক না কেন তাতে এক ভিন্ন ধরনের সুগন্ধ যুক্ত হয়।

রসুন বা সেলারি লবণ
এই সুগন্ধি লবণ তৈরি হয় টেবিল, পাথুরে বা সামুদ্রিক লবণের সঙ্গে শুকনো রসুন বা সেলারি নামের বিশেষ সুগন্ধিযুক্ত গাছের পাতার মিশ্রণে। তরকারিতে বিশেষ স্বাদ যুক্ত করতে এর জুড়ি মেলা ভার।

পরিশোধিত আয়োডিন লবণ
আপনি হয়ত ইতিমধ্যেই এই লবণ ব্যবহার করছেন। আপনার খাবার টেবিলে হরহামেশাই আয়োডিনযুক্ত এই লবণের উপস্থিতি থাকে। এই লবণ বুদ্ধিবৃত্তিক এবং দৈহিক উন্নয়নের অক্ষমতাগুলো দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই লবণগুলো একটি আরেকটি থেকে খনিজ উপাদানগত ও স্বাদের দিক থেকে পরস্পর থেকে একটু আলাদা। তবে এদের একটিকে আরেকটির চেয়ে বেশি স্বাস্থ্যকর ভাবাটা ভুল হবে।

আর দেহের খনিজ উপাদানের চাহিদা বা ঘাটতি মেটাতে শুধু লবণের ওপর নির্ভর করলেই চলবে না। দেহের খনিজ উপাদানের চাহিদা পূরণে নিয়মিতভাবে ফলমূল এবং শাকসবজিও খেতে হবে।


মন্তব্য