kalerkantho


শিশুকে মানসিকভাবে শক্তিশালী করতে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ১৫:২৯



শিশুকে মানসিকভাবে শক্তিশালী করতে...

সন্তানের জন্য একটা স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। আর এ কারণে বাবা-মায়ের ক্রমাগত চিন্তা করে যান, কিভাবে তারা আরো ভালো কিছু করতে পারেন? এমন এক পরিবেশ তৈরি করতে হবে যা অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর। যেখানে অনেক বেশি পরিচর্যার সুযোগ রয়েছে। এখানে নিন এমন পরিবেশ তৈরিতে বিশেষজ্ঞের টিপস।

১. শিশুসুলভ হলেও তাদের চিন্তা-ভাবনার কথাগুলো মন দিয়ে শুনুন। সব উড়িয়ে দেবেন না। তাদের এই চিন্তার গতিপ্রকৃতি, কর্মকাণ্ড এবং সাহসিকতা সামনে এগিয়ে যাবে। তাই এর সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। একবার বুঝে ফেললে তাদের স্বাস্থ্যকর উপায়ে বড় করে তুলতে আপনার তেমন কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হতে হবে না।

২. শিশুদের আবেগগত বুদ্ধিমত্তা বৃদ্ধির চেষ্টা করুন। বিভিন্ন গবেষণায় বলা হয়, আবেগগত বিষয় আত্মস্থ করার মাধ্যমে দীর্ঘমেয়াদে সফলতা অর্জন করা যায়। শিশুরা যেন নিজের আবেগ সম্পর্ক ধারণা লাভ করে সে জন্য আগে থেকেই শিক্ষা দিন। তাদের এই সব আবেগগুলোর নামকরণ করতে দিন। কোন আবেগকে তারা কি নাম দেয় তা দেখুন।

৩. বাচ্চা কান্না করতে থাকলে থেমে যেতে বলবেন না। তাদের আবেগ বুঝতে হবে। তার আবেগকে নিজের মধ্যে আনুন। যেকোনো আবেগ তাদের মাঝে কাজ করবে। একে চিনিয়ে দিন। এমন হলে কি করতে হবে তা বুঝিয়ে দিন। যদি তাদের আবেগ দমনে বাবা-মা কাজ করেন, তবে শিশুরা এগুলো ভুল উপায়ে নিয়ন্ত্রণ করতে চাইবে।

৪. ওদের সময় দিন। হেসে-খেলে দারুণ সময় কাটান। এমন কাজে ওদের যুক্ত করুন যা করতে দুজনেরই ভালো লাগে। তাদের আবেগ ও চাওয়া-পাওয়া যে গুরুত্বপূর্ণ তার সম্পর্কে ধারণা দিতে হবে। এতে শিশুকাল থেকেই তাদের আত্মবিশ্বাস গড়ে উঠবে।

৫. বাবা-মা হিসাবে শিশুর খাওয়া-ঘুম বা পোশাকের বিষয়ে খেয়াল দেওয়া হয়। কিন্তু তাদেরও মানসিক চাহিদা রয়েছে। আবেগগত এবং মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে এদিকেও নজর দিতে হবে। ধরুন, তাদের জ্বর এলো। সে ক্ষেত্রে কেবল সুস্থ করে তোলাই যথেষ্ট নয়। এ সময়টাতে তাদের মানসিক অবস্থার দিকেও নজর দিতে হবে। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

 


মন্তব্য