kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


যে জিনিসগুলো সব সময় ক্রেডিট কার্ডে কেনা উচিত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৫০



যে জিনিসগুলো সব সময় ক্রেডিট কার্ডে কেনা উচিত

ক্রেডিট কার্ড সম্পর্কে অনেকেরই বাজে ধারণা রয়েছে। তারা বলেন, এর কোন ভালো দিক নেই।

আসলে মানুষ অসচেতনভাবে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে খুব সহজে ঋণের জালে জড়িয়ে পড়েন।

তবে এর ভালো দিকও রয়েছে যখন আপনি কোনো কেনাকাটা করবেন। অনেক ধরনের কেনাকাটার কাজটি সহজে ক্রেডিট কার্ডে সারতে পারেন। আবার বেশ কিছু ক্ষেত্রে ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহারে ক্রয়ের সময় সাবধান থাকতে হবে। এখানে বিশেষজ্ঞরা দিয়েছেন পরামর্শ।

১. অনলাইনে কেনাকাটা : এ ধরনের কেনাকাটায় ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার দারুণ। তবে কার্ডে যে অর্থ রয়েছে তার সীমা যেনো ছাড়িয়ে না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন।

২. ফ্লাইট : বিমানের টিকিট বুকিং দিতে পারেন ক্রেডিট কার্ড দিয়ে। বিল্ট-ইন ট্রাভেল প্রোটেকশনের জন্য ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার ভালো।

৩. ক্ষুদ্র ভেন্ডরদের কাছ থেকে কিছু কিনতে : খাবারের দোকান, ছোটখাটো দোকান বা ভেন্ডরের কাছে কার্ড ব্যবহারের ব্যবস্থা থাকলে সেখান ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করুন।

৪. গাড়ি ভাড়া : অনেক ক্রেডিট কার্ড ভাড়াকৃত গাড়ির ইন্সুরেন্স প্রদান করে। এতে অনেক ঝামেলা থেকে রেহাই পেতে পারেন। যদি ডেবিট কার্ড ব্যবহার করেন তবে হয়তো বেশ কিছু অর্থ জমা রাখতে হবে।

৫. হোটেল রুম : গাড়ির মতো ডেবিট কার্ডে হোটেল কক্ষ ভাড়া করলেও কিছু অর্থ জমা রাখতে হতে পারে। কক্ষের কোনো ক্ষতির কথা বিবেচনা করে এমনটা করা হয়। কিন্তু ক্রেডিট কার্ডে ডিসকাউন্টসহ বাড়তি সুবিধা মেলে। তাই হোটেলে কক্ষভাড়া পরিশোধ করুন ক্রেডিট কার্ডে।

৬. ফোনের মাধ্যমে কোনো কেনাকাটায় ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার চলতে পারে। যদি পণ্যটি আপনার হাতে শেষ অবধি নাও আসে কোনো সমস্যা নেই।

৭. যে পণ্যে ওয়ারেন্টি আছে : যেসব পণ্যে ওয়ারেন্টি দেয় তা ক্রেডিট কার্ডে কিনতে পারেন। বিভিন্ন ইলেকট্রনিক পণ্য বা যেকোনো কিছু যার ওয়ারেন্টি দেয় নির্মাতা, তাই ক্রেডিট কার্ডে কেনা উচিত।

৮. দামি কিছু কিনতে : যদি বাজারে নতুন একটি ওয়াশিং মেশিন বা ল্যাপটপ কিনতে যান, তবে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার সবচেয়ে ভালো উপায়। এ ক্ষেত্রে সুবিধা মিলতে পারে। ডিসকাউন্ট বা কিস্তি সুবিধা মেলে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার

 


মন্তব্য