kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সব ধরনের ঠাণ্ডার ওষুধটি কী?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:৩৪



সব ধরনের ঠাণ্ডার ওষুধটি কী?

আপনি যদি কোনো ধরনের ঠাণ্ডার সমস্যায় ভোগেন তাহলে এ বিষয়ীট বিবেচনা করতে পারেন। এটি কার্যকর হতে পারে আপনার শ্বাস নিতে সমস্যা হলে, নার্ভ সমস্যায়, একইভোবে হাঁটতে কষ্ট ও দৃষ্টিশক্তির সমস্যাতেও এটি সমান কার্যকর।

এ সমস্যায় কারণ হতে পারে ভিটামিন, মিনারেল ও প্রোটিনসহ কয়েকটি খাদ্যপ্রাণের ঘাটতি। আর এর সমাধানও সেভাবেই করা উচিত। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।
এ বিষয়ে একজন বিশেষজ্ঞ বলেন, দুটি বড় ভিটামিনের অভাবে ঠাণ্ডার সমস্যা হতে পারে। আর এ সমস্যার সমাধান হতে পারে সে অভাব পূরণের মাধ্যমে।
ভিটামিন ডি
ভিটামিন ডি-র অভাবে বহু মনুষই নানা ধরনের সমস্যায় আক্রান্ত হয়। এসব সম্যার মধ্যে রয়েছে শিশুদের অ্যাজমা, দুর্বল হাড়, হৃদরোগজনিত সমস্যা, বুদ্ধিমত্তার দুর্বলতা ইতাদি। এছাড়া ভিটামিন ডিয়ের অভাবে যেসব রোগ বা এ ধরনের সমস্যা হতে পারে তার মধ্যে ক্যান্সারও রয়েছে। অনেকেই জানেন যে, ভিটামিন ডি সূর্যতাপের ফলে দেহে গঠিত হয়। এছাড়া এটি ডিমের কুসুম ও মাছের তেলে পাওয়া যায়। এর পরেও অবশ্য বহু মানুষ ভিটামিন ডি-র অভাবে থাকেন। এক্ষেত্রে সমাধান হলো ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা।
ভিটামিন বি১২
ভিটামিন বি১২-এর অভাবে কত সমস্যা হতে পারে তার তালিকা দেখলে যে কেউ অবাক হবেন। কারণ পালপিটেশন, নার্ভ সমস্যা ও শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যাই শুধু নয় এর অভাবে আরও বহু সমস্যা হতে পারে। ভিটামিন বি১২-এর অভাবে ত্বকের সমস্যা হতে পারে। এক্ষেত্রে অনেকেরই ত্বক ফ্যাকাসে হয়ে যেতে পারে। এছাড়া বিষণ্ণতা, স্মৃতিশক্তি নষ্ট, চুল পড়ে যাওয়া ও আচরণগত সমস্যা হতে পারে। এছাড়া এ ভিটামিনের অভাবে হঠাৎ করে অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার প্রবণতাও দেখা দিতে পারে। যারা নিরামিষ খান সব সময় তাদের এ সমস্যা বেশি হতে পারে। কারণ এ ভিটামিনটি দুধ ও আমিষে পাওয়া যায়। এছাড়া আরেকটি কারণে ভিটামিন বি১২ সমস্যা হতে পারে। এ সমস্যার কারণ কিছু রোগ। এ রোগগুলোর কারণে ভিটামিন বি দেহে প্রবেশ করবে না।
নিজে ওষুধ খাবেন না
ঠাণ্ডা সমস্যার সমাধানে আরেকটি বিষয় বিশেষজ্ঞরা মনে করিয়ে দিচ্ছেন। তা হলো- নিজে ওষুধ খাওয়া যাবে না। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েই আপনার ভিটামিন ও অন্যান্য সমস্যার চিকিৎসা করতে হবে। আর এ সমস্যা হলে তাই বিশেষজ্ঞের পরামর্শ হলো চিকিৎসকের অনুমতি ছাড়া সাপ্লিমেন্ট সেবন করতে হবে। কারণ ভিটামিন বাড়তি মাত্রায় দেহে প্রবেশ করলে দেহে বিষক্রিয়া হতে পারে।


মন্তব্য