kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


অফিসে যেভাবে নষ্ট করছেন নিজের উৎপাদনশীলতা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০৯:৫৮



অফিসে যেভাবে নষ্ট করছেন নিজের উৎপাদনশীলতা

১. সময় অপচয়কারীদের জন্য সময় রাখা
অফিসে কিছু সহকর্মী আছেন, যাঁরা আপনার সময় নষ্ট করতে ওস্তাদ। এটা আশপাশের সবারই মূল্যবান সময় খেয়ে ফেলেন।

এসব মানুষের জন্য বাড়তি সময় রাখলে তো খবর হয়ে যাবে আপনার। এদের সঙ্গে থাকলে শুধু সময়ই নয়, বাড়তি শক্তিও ব্যয় করতে হবে। হয়তো তাদের জীবনে কী কী ঘটেছে, এই গালগল্প করেই কাজের সময় ফুরিয়ে আসবে। এদের এড়িয়ে যান। বলুন যে আপনার কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ রয়েছে। সেগুলো আগে শেষ করতে হবে।
২. অনির্দিষ্ট কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকা
হয়তো আজকের কাজের বিস্তারিত তালিকা করে রেখেছেন। কিন্তু নোটপ্যাডের প্রতিটা কাজই আংশিকভাবে লেখা। আপনি নিজেও জানেন না কিভাবে এদের পূর্ণতা দিতে হবে। আসলে মূল কাজের বিস্তারিত সম্পর্কে কিছু পয়েন্ট লিখে ফেলুন। নয়তো কাজগুলো অর্ধেক সম্পন্ন হবে। কাজ নির্দিষ্ট করুন। আর সে পথে এগোন। এসব এলোমেলো কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকলে অবধারিতভাবে উত্পাদনশীলতা কমে আসবে।
৩. বিরতি এড়িয়ে যাওয়া
কাজের ফাঁকে বিরতি পরবর্তী কাজের জন্য আপনাকে শতভাগ প্রস্তুত করে দেয়। আর সেখানেই ভুল করেন কর্মজীবীরা। এক ঘণ্টা পরপর মিনিট পাঁচেকের জন্য বিরতি নিন। একটু হেঁটে আসুন। এক গ্লাস পানি খান বা গান শুনুন। এতে উত্পাদনশীলতা অনেক বেড়ে যায়।
৪. চিন্তার বিক্ষিপ্ততার সুযোগ না রাখা
মনোযোগ সব সময় অটুট থাকবে না। মানুষ মাত্রই তার মনে বিক্ষিপ্ততা আসবেই। যে কাজেই যান না কেন, এর সুযোগ থাকতে হবে। অর্থাৎ যদি ধরেই নেন, মনোযোগ এক মুহূর্তের জন্য নষ্ট হওয়া যাবে না, তো বিপদে আপনাকেই পড়তে হবে। বরং কাজের মাঝে এদিক-ওদিক মন দিন।
--সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 


মন্তব্য