kalerkantho

মঙ্গলবার। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৯ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চট করে সবার মনে স্থান করে নিতে চান?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০৯:৫০



চট করে সবার মনে স্থান করে নিতে চান?

১. মনোযোগী শ্রোতা হয়ে উঠুন
অনেকেই বক্তার কথা শোনেন। কিন্তু সবাই আবার মনোযোগ দিয়ে শোনেন না। বক্তার কথা সত্যিকার অর্থেই যাঁরা শোনেন, তাঁরাই মনোযোগী শ্রোতা। কথার মধ্যে অর্থপূর্ণ প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া এমন শ্রোতার পরিচয় তুলে ধরে। বক্তার সঙ্গে চমত্কার যোগাযোগের সেরা মাধ্যম তার কথা মনোযোগের সঙ্গে শোনা। যেকোনো মানুষ সেই ব্যক্তিকেই পছন্দ করেন, যিনি তাঁর কথা সত্যিকার অর্থেই শোনেন।
২. তাঁকেই আগে বলতে দিন
কথোপকথনের শুরুটা তাঁদের হাতেই ছেড়ে দিন। আগে কথা বলার সুযোগ দিন। তাঁর আলাপচারিতাকে এগিয়ে নিতে আপনি ভালো মানের কিছু প্রশ্ন করে যেতে পারেন। এ ক্ষেত্রে সব সময় নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার মাধ্যমে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করা যায় না। আপনি কাউকে বুঝতে পারলে তিনি আপনার ওপর নির্ভরশীলতা স্থাপন করবেন। বিশ্বস্ততা অর্জন করতে অন্যদের সুযোগ দিতে হবে।
৩. আপনি যেমন তেমনই থাকুন
আচরণ ও কথাবার্তায় মেকি ভাব আনবেন না। সবার সামনে নির্ভেজাল ব্যক্তিত্ব উপস্থাপন করুন। আপনি যখন উদার ও রহস্যঘেরা নন, তখনই মানুষ আপনাকে সৎ বলে গণ্য করবে। যাঁরা নিজেকে লুকিয়ে কৃত্রিম হয়ে উঠতে চান না, তাঁরাই আত্মবিশ্বাসী থাকেন। আর সবাই আত্মবিশ্বাসীদের সমীহের চোখে দেখে।
৪. ইতিবাচক অঙ্গভঙ্গি
মুখের প্রকাশভঙ্গি, দেহের ভাষা এবং কণ্ঠ মানুষের ব্যক্তিত্বের জানান দেয়। এর মাধ্যমে ইতিবাচক মনোভাব স্পষ্ট হয়ে ওঠে। চোখে  চোখ রেখে, সটান দাঁড়িয়ে যদি উদ্যমী কণ্ঠে কথা বলেন, তবে সব মানুষ আপনাকে পছন্দ করতে শুরু করবে।
৫. নাম মনে রাখুন
যাঁদের সঙ্গে পরিচিত হচ্ছেন তাঁদের নাম ভুলে যাবেন না। মানুষ তাঁর নামের মাধ্যমেই পরিচিত হয়ে ওঠে। তা ছাড়া অন্যের মুখে নিজের নাম শুনতেও পছন্দ করে মানুষ। তাই সদ্য পরিচিতদের নাম ধরে ডাকুন। আপনার মুখে তাঁর নাম উচ্চারিত হচ্ছে মানেই আপনাকে তিনি কাছের কেউ বলে ভাবতে শুরু করবেন।
৬. ফোনে ব্যস্ততা নয়
কারো মনে স্থান করে নেওয়ার কাজটি ফোনে ব্যস্ত থাকা অবস্থায় ঘটে না। তাই কারো সঙ্গে পরিচিত হওয়া বা কথা বলার সময় ফোনটি পকেটেই রাখুন। সেখানে শ্রোতা হয়ে উঠতে হবে। কেউ কথা বলছে আর আপনি  মোবাইল দেখছেন, এ বিষয়টি মোটেও সুখকর নয়।
৭. কথা বলুন কিছুক্ষণ
পরিচিত হওয়ার পর তাঁর সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলার মতো সুযোগ সৃষ্টি করুন। মাত্র পাঁচ মিনিটের আলাপচারিতায় সম্পর্কের উন্নতি ঘটে। দুজনের মধ্যে বন্ধুত্বের সৃষ্টি হয়।
--ফোর্বস অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার


মন্তব্য