kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চরম একঘেয়ে লোকদের ১০ অভ্যাস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:২১



চরম একঘেয়ে লোকদের ১০ অভ্যাস

আমরা সকলেই একঘেয়েমিজনিত বিরক্তিকে ভয় পাই। আমরা ভয়ে থাকি নিজেরাই হয়তো একঘেয়েমিতে আক্রান্ত হব।

এর চেয়ে মারাত্মক হলো, অন্যকে একঘেয়েমিতে আক্রান্ত করা।

এখানে রইল এমন কিছু লক্ষণীয় বৈশিষ্ট্যের বিবরণ যা থেকে আপনি আপনার জীবনের একঘেয়েমিতে আক্রান্তকারী লোকদেরকে শনাক্ত করতে সক্ষম হবেন। নিজেও একজন একঘেয়ে লোকে পরিণত হওয়া থেকে রেহাই পাবেন।

১. একঘেয়ে বা বিরক্তিকর লোকদের কথপোকথনে কোনো ভারসাম্য থাকে না। কথা বলা ও শোনার মধ্যে কোনো ছন্দ খুঁজে পাওয়ার বদলে বরং এরা চরম একতরফাভাবে নিজেদের কথা বলতে থাকেন। এরা হয় শুধু অন্যের কথা শোনেন আর নয়ত শুধু নিজের কথাই বলেন।

২. অন্যরা তার কথা শুনছে কিনা তা বুঝেন না একঘেয়ে লোকরা। শ্রোতারা তার কথা শুনতে আগ্রহী কিনা তা বুঝতে পারেন না এরা। কোনো শ্রোতা হয়ত ভদ্রতাবশত শুধু এদের কথার সঙ্গে মাথা নাড়িয়ে সায় দেন। এর মাধ্যমে ওই শ্রোতা তিনি কী বলছেন বা না বলছেন সে ব্যপারে তার কোনো আগ্রহ নেই তা বুঝাতে চাইছেন সেটাই বুঝতে পারেন না এরা।

৩. একঘেয়ে লোকরা অন্যকে হাসাতে পারেন না
হাস্যরসের মাধ্যমে জ্ঞানীয় নমনীয়তা প্রকাশিত হয়। এটি এমন একটি দক্ষতা যার মাধ্যমে কেউ কোনো একটি ধারণা বা পরিস্থিতি বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি থেকে মূল্যায়ন করতে সক্ষম হন। এরপর স্বাভাবিকভাবেই সেটিকে হালকা করতে পারেন। কিন্তু একঘেয়ে লোকদের এই দক্ষতার ঘাটতি থাকে।

৪. একঘেয়ে লোকরা সব সময় একই জিনিস করেন। একঘেয়ে লোকরা বৈচিত্র্যহীন এবং নিষ্ক্রিয় জীবনযাপন করেন। বৈচিত্র্যপূর্ণ অভিজ্ঞতা লোককে সপ্তাহ শেষে পানশালায় গিয়ে খোশগল্পে মেতে উঠার জন্য আলোচ্য বিষয়বস্তু সরবরাহ করে। আড্ডায় মেতে ওঠার মতো সত্যিই কিছু বিষয় পাওয়া যায়।

৫. একঘেয়ে লোকদের দলগত কথপোকথনে বলার মতো কিছু্ই থাকে না। একঘেয়ে লোকরা সামাজিক ইস্যুতে উচ্চকিত ও অসংবেদশীল হন। কিন্তু তারা সামাজিক বিষয়ে অতিরিক্ত সতর্কও হতে পারেন।
উচ্চকিত একঘেয়ে লোকরা ভাবতে পারেন তারাই সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব। আর নীরব একঘেয়ে লোকরা বিশ্বাস করেন তাদের কথা কেউ শুনবে না। ফলে তারা কখনোই কিছু বলেন না। এরা কোনো জিজ্ঞাসার উত্তরে আমি জানি না বা আমার ধারণা এভাবে কথা বলেন।

৬. একঘেয়ে লোকদের নিজস্ব কোনো মতামত থাকে না। আপনি যা ভাবেন তা যদি গভীর সামালোচকের দৃষ্টি নিয়ে না ভাবেন তাহলে বিষয়টি নিয়ে কথোপকথনের সময় আপনার তেমন কিছুই দেওয়ার থাকবে না। যারা কোনো বিষয়ে অতীতে তাদেরকে কী বিশ্বাস করতে শেখানো হতো তা দেখেন না তারাও একঘেয়ে লোক। এরা কোনো বিষয়ে শুধু বিশেষ স্থান, কাল ও পাত্রের প্রেক্ষিতে নিজেদের সংকীর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরেন।

৭. একঘেয়ে লোকরা জানেন না কীভাবে একটি ভালো গল্প বলতে হয়। কাউকে আকর্ষণ করতে এবং অন্যকে সত্যিকার অর্থেই আগ্রহী করে তুলতে সুন্দর করে গল্প বলার দক্ষতা থাকতে হবে। নিজে যে গল্পটি বলবেন সে ব্যাপারে যত্নবান হওয়ার পাশাপাশি অন্যদেরকেও গল্প বলায় উৎসাহিত করতে হবে। আর তাদের গল্পের প্রতিও আগ্রহী এবং যত্নবান হতে হবে।

৮. একঘেয়ে লোকরা অন্যের দৃষ্টিভঙ্গিগত অবস্থান থেকে কোনো বিষয়কে দেখতে পারেন না। একঘেয়ে লোকরা সচরাচর অন্যের দৃষ্টিভঙ্গিগত দিক থেকে কোনো কথোপকথনকে বুঝতে পারেন না। অপরের দৃষ্টিভঙ্গিগত অবস্থান থেকে কোনো কিছুর বিচার করতে পারা খুবই গুরুত্বপূর্ণ দক্ষতা। এই দক্ষতাই কাউকে কথোপকথনে আকর্ষণীয় করে তোলে।

৯. একঘেয়ে লোকদের হাতে নতুন করে যোগ করার মতো কিছু থাকে না। গবেষণায় দেখা গেছে মানব মস্তিষ্ক মূলত নতুনত্ব খোঁজার জন্যই নিয়তিবদ্ধ। ৮ লাখ বছর আগে বিবর্তনের মাধ্যমে এই চাহিদার উদ্ভব হয়। আপনি যদি নতুন কিছু সরবরাহ না করেন তাহলে শ্রোতারাও আপনার প্রতি আগ্রহ হারাবেন এবং তারা উদ্দীপিত হবেন না। একঘেয়ে লোকদের কাছ থেকে নতুন কিছুই শেখা যায় না।

১০. একঘেয়ে লোকরা কথোপকথনে কাউকে অন্তর্ভুক্ত করেন না। কথোপকথনে অন্যদেরকে আগ্রহ নিয়ে অন্তর্ভুক্ত করতে অক্ষমতা লোককে একঘেয়ে করে তোলে। একঘেয়ে লোকরা তাদের নিজেদের কথা অপ্রাসঙ্গিকভাবে এত বেশি বিস্তারিত বলতে চান যে অন্যরা তাদের সঙ্গে কথোপকথনের আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন।
আপনি যদি বুঝতে না পারেন, আপনার চক্রের কেউ একজন কথোপকথনে মনোযোগ ধরে রাখার আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন তাহলে আপনি নিশ্চিতভাবেই একজন একঘেয়ে লোক।
সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার


মন্তব্য