kalerkantho


সামান্য ঘুমানো মানুষেরা কি স্বাভাবিক?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৮:০৮



সামান্য ঘুমানো মানুষেরা কি স্বাভাবিক?

রাতে ঠিকঠাক ঘুম না হলে অধিকাংশ মানুষেরই পরবর্তী দিনে বেশ অসুবিধা হয়। আর এতে সারাদিন ঘুম ঘুম ভাব হয় কিংবা মাথায় যন্ত্রণা হয়। যদিও কিছু মানুষ দাবি করেন তাদের বেশি ঘুমানোর দরকার হয় না। তাহলে প্রশ্ন হলো, উভয়ের পার্থক্য কেন হয়? এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্বাভাবিক মানুষের প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমানো উচিত। সুস্থ থাকার জন্য এটি প্রয়োজনীয়। কিন্তু এর চেয়ে অনেক কম ঘুমেই বহু মানুষ বেঁচে থাকেন।   তবে তারা মোটেই অন্য মানুষদের মতো স্বাভাবিক নন। রাতে ঘুম না হলে তারা নিজের অজান্তেই দিনে নানাধরনের সমস্যায় পড়েন।
যারা বেশিমাত্রায় ঘুমান না তারা কিভাবে সুস্থ থাকেন, এ বিষয়টি গবেষকদের কাছে বহু প্রশ্নে এনেছিল। বিষয়টি অনুসন্ধানে যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ইউটাহ-এর গবেষকরা অনুসন্ধান পরিচালনা করেন। এতে অংশ নেন প্রায় ৯০০ মানুষ। অংশগ্রহণকারীদের দুটি ভাগে বিভক্ত করা হয়। একদল ছয় ঘণ্টারও কম ঘুমান এবং অন্যদল স্বাভাবিক ঘুমান।
গবেষকরা বিষয়টি অনুসন্ধান করে দেখেন যে, রাতে যারা কম ঘুমান তারা অন্য মানুষের মতো স্বাভাবিক থাকার চেষ্টা করলেও বাস্তবে তারা মোটেই স্বাভাবিক নয়। দিনের বেলায় নানা অসুবিধার সম্মুখীন হন তারা।
কম ঘুমের ব্যক্তিরা অনেক সময় বুঝতেও পারেন না যে, তাদের কম ঘুমের কারণে ক্লান্তি ভর করেছে। এছাড়া প্রায়ই তারা দিনের বেলা ঘুমে ঢলে পড়লেও বিষয়টি সঠিকভাবে অনুধাবন করতে পারেন না।
এ বিষয়ে গবেষণাপত্রটির সহ-লেখক ক্রিস্টোফার জনস বলেন, মস্তিষ্কের এমআরআই পরীক্ষা করে আমরা অল্প ঘুমের মানুষদের মস্তিষ্কের এ অদ্ভুত বিষয়গুলো জানতে পেরেছি।   তবে এ বিষয়ে আরও অনুসন্ধান করা হচ্ছে। পরবর্তীতে এ বিষয়গুলো জানানো হবে।
গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে ব্রেইন অ্যান্ড বিহ্যাভিওর জার্নালে।


মন্তব্য