kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফেসবুক ধ্বংস করছে আপনার কর্মজীবন!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:১৪



ফেসবুক ধ্বংস করছে আপনার কর্মজীবন!

আপনি যদি সামাজিক গণমাধ্যম ব্যবহার থেকে বেরিয়ে আসার বিষয়ে চিন্তা করে থাকেন তাহলে একটি সহজ প্রশ্ন আপনাকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করবে। আপনি কি “অ্যানি বেনিফিট” বা যে কোনো উপকারিতা মানসিকতার শিকার?
জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ক্যাল নিউপোর্ট এই টার্মটির উদ্ভাবন করেছেন।

সাম্প্রতিক বেস্ট সেলার “ডিপ ওয়ার্ক” সহ তিনি বেশ কয়েকটি বেস্ট সেলার বইয়ের লেখক।
দ্য জেমস আলথুসার শোর সাম্প্রতিক একটি এপিসোডে নিউপোর্ট “অ্যানি বেনিফিট” মনোভঙ্গির ধ্বংসাত্মক দিক এবং তা কী করে আপনার কর্মজীবনকে ধ্বংস করছে সে বিষয়ে আলোচনা করেছেন। বিষয়টি নিয়ে তিনি “ডিপ ওয়ার্কে” এভাবে আলোচনা করেছেন, “আপনি হয়তো কোনো নেটওয়ার্ক টুল তখনই ব্যবহার করবেন যখন আপনি এর সম্ভাব্য কোনো উপকারিতা শনাক্ত করতে সক্ষম হবেন। অথবা তা ব্যবহার করতে না পেরে কোনো কিছু হাতছাড়া করে ফেলছেন এই ভাবনা থেকেও সেটি ব্যবহার করতে পারেন। ”
আপনি হয়তো ভাবতে পারেন ফেসবুক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার সামাজিক জীবন ও কর্মজীবনে সাফল্য অর্জনে সক্ষম হবেন। আপনি হয়তো পুরোনো বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ এবং আপনি যেসব নিবন্ধ লিখছেন সেসবের লিঙ্ক ফেসবুকে শেয়ার করে পোস্ট দিতে পারেন। কিন্তু নিউপোর্ট বলেছেন, ফেসবুক আপনার লেখালেখি, গবেষণা অথবা আপনার পছন্দের এমন কোনো কাজ যাতে গভীর মনোযোগের দরকার হয় তাতে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে।
আপনি যখন ফেসবুক ব্যবহারে উপকারের তুলনায় অপকারের ওজনটাই বেশি দেখবেন তখন নিজের জীবন থেকে সামাজিক গণমাধ্যমকে অপসারণ করাকেই আপনি ঠিক মনে করবেন। যদিও এটি কিছু না কিছু উপকারিতা সবসময়ই সরবরাহ করবে।
নিউপোর্ট বলেন, কোনো প্রযু্ক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে “অ্যানি বেনিফিট” বা “যে কোনো উপকারিতা” মনোভঙ্গির বদলে বরং “ক্রাফটসম্যান’স অ্যাপ্রোচ” বা কারিগর মনোভঙ্গি অবলম্বন করুন।
“ব্যক্তিগত ও কর্মজীবনে সাফল্য এবং সুখ লাভের পেছনে সক্রিয় মৌলিক উপাদানগুলো কী তা আগে শনাক্ত করুন। কোনো একটি প্রযুক্তিগত হাতিয়ার তখনই ব্যবহার করুন যখন এর ইতিবাচক প্রভাবগুলো এর নেতিবাচক প্রভাবগুলো থেকে বেশি ওজনদার হয়। ”
তবে নিউপোর্ট কাউকে এখনই সামাজিক গণমাধ্যম ত্যাগের পরামর্শ দিচ্ছেন না। কিন্তু আপনার যদি এমনটা অনুভূত হয় যে, আপনি এর ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ক্যারিয়ার ধ্বংস করছেন তাহলে তা ত্যাগ করাই উচিৎ। এর মাধ্যমে আপনি হয়তো অন্য কোনো এবং সম্ভাব্য বেশি সহায়ক কোনো কৌশল ব্যবহারে নিজের সক্ষমতাটুকুও ধ্বংস করছেন।
সূত্র: দ্য সিডনি মর্নিং হেরাল্ড


মন্তব্য