kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হেরোইন আসক্তি থেকে মুক্তির আগের ও পরের সেলফি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:০৫



হেরোইন আসক্তি থেকে মুক্তির আগের ও পরের সেলফি

গত বুধবার অনলাইন সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম রেড্ডিটে ডিজরিগার্ডদিসঅরডোন্ট নামের এক ইউজার একটি অবিশ্বাস্য শক্তিশালি সেলফি পোস্ট করেছেন। সঙ্গে দুই বছর আগের একটি মুখের ছবিও পোস্ট করেছেন।

ছবিটি তার হেরোইনে আসক্ত থাকার সময়কার। আর নতুন সেলফিটি হোরোইন আসক্তি থেকে মুক্ত হওয়ার পরের ছবি।
পোস্টটিতে ক্যাপশন ছিল, “এই দেখুন ৮২৬ দিনের প্রশান্ত রূপ দেখতে কেমন। আসক্তি থেকে মুক্তি লাভ সম্ভব!” হাউস্টোন ক্রনিকলের মতে ডিজরিগার্ডদিজঅরডোন্ট নামের ওই আইডির মানুষটি হলেন, ২৪ বছর বয়সী কোর্টনি নামের এক নারী।
২০১৪ সালে ওই নারীর এক মাসের জেল হয় এবং নিজের মেয়ের অভিভাবকত্ব হারান তিনি। এসময় তিনি মানসিক অবসাদে আক্রান্ত হন এবং তার ছেলে বন্ধুর সাথে নিপীড়নমূলক সম্পর্কের বেড়াজালে আটকে পড়েন। ছেলে বন্ধুটিই তাকে হেরোইন সেবনে উৎসাহিত করেন।
প্রায় টানা আট মাস ধরে প্রতিদিনই হেরোইন সেবন করার পর তিনি একজন জজের সঙ্গে যোগাযোগ করে সাহাজ্য প্রার্থনা করেন। এরপর তাকে একটি পুনর্বাসন কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।
দু্ই বছর পর তিনি তার মেয়েকে ফিরে পান। এরপর থেকে তিনি তার মতো অন্য মাদকাসক্তদেরকেও স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে উৎসাহিত করার জন্য নিজের আরোগ্য লাভের গল্প শোনান। হেরোইনে আসক্ত থাকা অবস্থায় নিজের চেহারার ছবিটি দেখে তিনি খুবই মর্মাহত হন। তা সত্ত্বেও অন্যদের উৎসাহিত করার জন্য তিনি ছবিটি বারবার ব্যবহার করেন।
রেড্ডিট পোস্টে কোর্টনি লিখেছেন, “এমন আরো অনেক হেরোইন আসক্ত আছেন যারা এখনো জাহান্নামের বৃত্তে বন্দি। যেমনটা আমিও ছিলাম; দুই বছর আগের আমার মুখের ছবিতে যা ফুটে উঠেছে। সুতরাং এমনকি যদি তাদের একজনও এটি দেখে এবং নিজেদের অবস্থার তুলনা করে তাহলে তাদের উপকার হবে। ” কোর্টনির পোস্টে হাজার হাজার সাবেক এবং বর্তমান হেরোইন আসক্ত লোক মন্তব্য করেছেন।
কোর্টনি জানিয়েছেন, শতশত লোক তাকে বলেছেন যে, তারাও তাদের নিজেদের জীবনকে পুনরায় সুন্দর করতে চায়। আর এ জন্য তাদের কোর্টনির গল্পটি শোনা দরকার। এভাবে অন্যদের অনুপ্রেরণার উৎস হতে পেরে নিজেকে খুব ভাগ্যবান বলেই মনে করছেন কোর্টনি।
সূত্র: ফক্স নিউজ


মন্তব্য