kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ডিমের আকার কি সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:০৯



ডিমের আকার কি সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ?

ডিম অত্যন্ত পুষ্টিকর খাবার হিসেবে পরিচিত। ডিমে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি উপাদান, যা দেহের ক্যালরি সরবরাহ থেকে শুরু করে নানা খাদ্যপ্রাণও সরবরাহ করে।

ডিমের বেশ কিছু গুণের কথা তুলে ধরা হলো এ লেখায়। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হাফিংটন পোস্ট।
ডিমের আকার কী গুরুত্বপূর্ণ?
আপনি যদি রেসিপি দেখে রান্না করতে চান তাহলে তাতে লেখা নাও থাকতে পারে ডিমটি বড় নাকি ছোট দিতে হবে। তবে আপনি যদি রেসিপিটি সঠিকভাবে অনুসরণ করতে চান তাহলে বড় ডিম ব্যবহার করতে হবে। আর যদি নির্দিষ্ট আকার উল্লেখ থাকে তাহলে সঠিক আকারের ডিমটিই ব্যবহার করুন।
বাদামি ডিম বনাম সাদা ডিম, কোনটি ভালো?
বাজারে বাদামি কিংবা সাদা- উভয় ধরনের ডিমই পাওয়া যায়। কিন্তু উভয়ের মাঝে কি পুষ্টিগুণের পার্থক্য রয়েছে? এ প্রশ্নের জবাবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন ডিম সাদা কিংবা বাদামি যাই হোক না কেন, উভয়ের পুষ্টিগুণে বড় কোনো পার্থক্য নেই। গবেষকরা বলছেন, বাদামি ডিমে রয়েছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। তবে একে খুব একটা বড় পার্থক্য হিসেবে মানছেন না তারা। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কর্নেল ইউনিভার্সিটির প্রাণীবিজ্ঞানের ভিজিটিং ফেলো ট্র বুই বলেন, ‘পুষ্টিগত দিক বিবেচনা করলে উভয়ের মাঝে পার্থক্য নেই.... বাদামি ডিমে রয়েছে বেশি ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। তবে এ পার্থক্য অতি সামান্য। ’
তাহলে ডিমের রঙে পার্থক্য কেন হয়? এ প্রসঙ্গে গবেষকরা বলেন, ডিমের রঙের পার্থক্য হয় জিনের কারণে। সাদা পালকের মুরগি সাদা ডিম দেয়। অন্যদিকে বাদামি বা গাঢ় রঙের পালকবিশিষ্ট মুরগি বাদামি ডিম দেয়।
ডিম কি রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়?
ডিম দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। আপনি যদি দেহের জীবাণুগুলো দূর করতে চান, ভাইরাস ও বিভিন্ন রোগের জীবাণুকে শায়েস্তা করতে চান তাহলে নিয়মিত ডিম খান। একটি বড় ডিমে রয়েছে প্রায় ২২ শতাংশ আরডিএ বা সেলেনিয়াম। এটি শিশুদের পুষ্টি চাহিদা মেটাতেও বিশেষভাবে কার্যকর, যা তাদের বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধে প্রতিরোধক্ষমতা অর্জনে সহায়তা করে।
ডিমের কোলস্টেরল কি ক্ষতিকর?
কোলস্টেরল দেহের ক্ষতি করে এমনটা অনেকেই জানি। কিন্তু কোলস্টেরলের রয়েছে ভালো ও মন্দ। মূলত মন্দ কোলস্টেরল দেহের ক্ষতি করে। আপনি যদি ভালো কোলস্টেরল গ্রহণ করেন তাহলে তা দেহের ক্ষতি করবে না। ডিমে রয়েছে এ ভালো কোলস্টেরল। এটি দেহের মন্দ কোলস্টেরল দূর করতেও সহায়ক। এ কারণে নিয়মিত ডিম খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন গবেষকরা। আর ডিমের কোলস্টেরল দেহের ক্ষতি করে না।


মন্তব্য