kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নারীরা, কর্মস্থলে উন্নতি করতে চাইলে ওজনের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:৫০



নারীরা, কর্মস্থলে উন্নতি করতে চাইলে ওজনের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন

যে নারীরা, বিশেষ করে যারা সেবাখাতে চাকরির অনুসন্ধান করছেন, ভালো চাকরি পেতে বা চাকরিতে উন্নতি করতে চাইলে তাদের নিজ দেহের ওজনের ব্যাপারে সতর্ক থাকা উচিত। এক গবেষণায় দেখা গেছে, ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারলে নারী চাকরি প্রার্থীদের চাকরি পাওয়া বা চাকরিতে উন্নতি করা কঠিন হয়।


নারীরা কর্মস্থলে তাদের দেহের ওজন-ভিত্তিক বিভিন্ন নেতিবাচক পূর্বানুমানের শিকার হন। এমনকি তাদের বডি মাস ইনডেক্স (বিএমআই) বা উচ্চতা এবং ওজনের ভারসাম্য বজায় থাকা বা স্বাস্থ্যকর পরিসরে থাকা সত্ত্বেও নারীরা বৈষ্যের শিকার হন।
গবেষকদের একজন স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোর স্ট্র্যাথক্লাইড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডেনিস নিকসন বলেন, “সেবা খাতের অনেক প্রতিষ্ঠানই যেমন- দোকান, বার এবং হোটেলগুলো তাদের কর্পোরেট ভাবমূর্তির সঙ্গে মানানসই হওয়ার মতো সঠিক চেহারার লোকদের খোঁজেন। ”
নিকসন বলেন, “চিকিৎসাগতভাবে স্বাস্থ্যকর বিএমআই থাকা সত্ত্বেও কীভাবে নারীরা সেবা খাতের চাকরিতে বৈষম্যের শিকার হন তা ওই গবেষণায় ফুটে উঠেছে। ”
প্লোস ওয়ান নামের জার্নালে প্রকাশিত ওই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদেরকে বাহ্যিক চেহারা-সুরতের ওপর ভিত্তি করে সেবা খাতে চাকরির জন্য লোকের রেটিং করতে বলা হয়।
গবেষণায় অংশগ্রহণকারী ১২০ জনকে আটজন চাকরিপ্রার্থী নারী-পুরুষের ছবি দিয়ে খদ্দেরদের মুখোমুখি হতে হয়, যেমন- হোটেলের ওয়েটার বা দোকানের বিক্রয় সহকারী এমন চাকরির জন্য তাদের রেটিং বা গুনগত মান বিচার করতে বলা হয়। আবার খদ্দেরদের মুখোমুখি হতে হয় না, যেমন- রান্নার লোক বা স্টক অ্যাসিসটেন্ট এমন চাকরির জন্যও তাদের রেটিং বা গুনগত মান বিচার করতে বলা হয়।
গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের আগেই বলে দেওয়া হয়, দেখতে হালকা-পাতলা এবং ভারী চেহারার লোকদের সকলেরই যোগ্যতা সমান সমান।
কিন্তু গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, কর্মীদের দৈহিক ওজনের ব্যাপারে উচ্চমাত্রায় সচেতন শ্রমবাজারে নারী-পুরুষ উভয়কেই কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়। বিশেষ করে খদ্দেরদের মুখোমুখি হতে হয় এমন ভুমিকার চাকরিতে তো বটেই। তবে অতিরিক্ত ওজনের কারণে নারীরাই বেশি বৈষম্যের শিকার হন। ”
নিকসন বলেন, “আমরা দেখতে পেয়েছি, স্বাভাবিক এবং স্বাস্থ্যকর বিএমআই পরিসরে থাকা মোটা নারীরাও অস্বাস্থ্যকর এবং অস্বাভাবিকভাবে বেশি ওজনের অধিকারী পুরুষদের তুলনায় ওজনভিত্তিক বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন বেশি। ”
সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস


মন্তব্য