kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কর্মস্থলে মানসিক চাপ? ১১ সমাধান জেনে নিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:২০



কর্মস্থলে মানসিক চাপ? ১১ সমাধান জেনে নিন

কর্মক্ষেত্রে অনেকেই নানা কাজের চাপে প্রচণ্ড মানসিক অস্বস্তিতে থাকেন। তবে কিছু পদক্ষেপ নিয়ে সহজেই এ মানসিক অস্বস্তি দূর করা যায়।

এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন কিছু উপায়। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।
১. কাজের গুরুত্ব পরিমাপ করা শিখুন। এটি আপনার জীবনকে সহজ করবে। ইমেইলের ক্ষেত্রে আপনার কোন মেইলকে কতক্ষণ সময় দিতে হবে এবং কোনটিকে গুরুত্ব দিতে হবে না, তা শিখে নিন।
২. সময়ের কাজ সময়ে করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অফিসের কাজ অফিসেই শেষ করুন। অফিসের ল্যাপটপ বাড়িতে নিয়ে আসা বাদ দিন।
৩. স্মার্টফোন থেকে আপনার ইমেইল অ্যাকাউন্ট চেক করা বাদ দিন। এটি আপনার মানসিক চাপ কমাবে এবং জীবনযাত্রা সহজ করবে।
৪. মনে রাখবেন আপনার পরিবার রয়েছে। আপনি একজন স্বামী/স্ত্রী কিংবা সন্তানের বাবা কিংবা কারো ভাই/বোন। আপনার পরিবারকে সময় দেওয়ার গুরুত্ব রয়েছে।
৫. প্রয়োজন ছাড়া আপনার বসকে অভিভূত করার চেষ্টা বাদ দিন। এটি কর্মক্ষেত্রে আপনার বাড়তি মানসিক চাপের কারণ হবে।
৬. আপনার নিজের জন্য কিছু সময় রাখুন। আপনার যে বিষয়গুলো পছন্দ সেগুলো নিয়েই কাজ করুন। এছাড়া নিজের শখও পূরণ করুন।
৭. অন্য কেউ যেন আপনার সুনাম নষ্ট করতে না পারে সেজন্য মনোযোগী হোন। নিজের দুর্বলতাকে নিজেই নির্ণয় করুন এবং তা দূর করার চেষ্টা করুন।
৮. কাজের পর ১৫-২০ মিনিট বিরতি নিন। এ সময়ে কোনো ধরনের ইন্টারনেট কিংবা মোবাইল/ট্যাব স্ক্রিন থেকে দূরে থাকুন। আপনার চোখ বন্ধ করে শ্বাস-প্রশ্বাস অনুশীলন করুন। এতে আপনার মন শান্ত হবে, মানসিক চাপ কমবে।
৯. কাজের পর বাড়িতে ফিরে নিজেকে প্রতিবার নিজের যা ভালো লাগে তাই করে নিজেকে প্রণোদনা দিন।
১০. কাজ শেষ হওয়ার পর বাড়ি যাওয়ার আগে আগামীদিনের কাজের একটি তালিকা করুন। পরদিন ফ্রেশ মনে কাজ করার জন্য এটি প্রয়োজনীয়।
১১. আপনি যে বিষয়গুলো যথাযথভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন, কেবল সে বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করলে মানসিক চাপ কমবে। নিজের নিয়ন্ত্রণের বাইরের বিষয়গুলো আপনার মানসিক চাপ অনেকাংশে বাড়িয়ে দেবে। তাই সব বিষয়ে কাজের চেষ্টা না করে কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে কাজে উন্নতির চেষ্টা করা ভালো।


মন্তব্য