kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


অফিসে সুখ উৎপাদনে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:৫৭



অফিসে সুখ উৎপাদনে...

১. সবুজে আশ্রয় নিন : ছোট ছোট উদ্ভিদ রয়েছে যেগুলোর বেশি যত্নআত্তি করতে হয় না। এমন সবুজ গাছ সাজিয়ে রাখুন কাজের টেবিলে বা কাছে-ধারে কোথাও।

তবে ফুল ধরে এমন গাছ রাখবেন না। সাদাটে গাছগুলোও এড়িয়ে যান। সবুজে চোখ পড়লে মনে শান্তি আসে। এ কাজে বনসাই বেছে নেওয়া বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

২. গোছালো হোন : অনেকের টেবিলে তাকালে মনে হয় সেখানে ঝড় হয়েছে। এমনিতেই জিনিসপত্র এলোমেলো রাখবেন না। কম্পিউটার, কিবোর্ড, কলমদানি এবং যাবতীয় কাগজপত্র সব গোছালো অবস্থায় রাখুন। সুন্দর গুছিয়ে রাখা টেবিল দেখলে খারাপ লাগা ভাব দূর হয়ে যাবে। নয় তো ঝড় বয়ে যাওয়া টেবিল মানসিক চাপ হয়ে ভর করে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা।

৩. অনুপ্রেরণাদায়ক কোনো ছবি : পেশাজীবনের মূল অনুষঙ্গ অনুপ্রেরণা। অনেকের টেবিলে বাবা কিংবা সন্তানের ছবি দেখা যায়। কেউ বা রাখে তার জীবনের আদর্শ মানুষটির ছবি। অনেক প্রতিষ্ঠান অবশ্য অনুপ্রেরণাদায়ক ছবি বা চিত্রকর্ম দেয়ালে টাঙিয়ে রাখে। এমন যদি না থাকে তবে নিজের পছন্দসই একটি ছবি বা চিত্রকর্ম টেবিলে রাখুন।

৪. সৌভাগ্যে বিশ্বাসীদের জন্য : তর্ক-বিতর্কে না-ই বা গেলেন। অনেকে সৌভাগ্যে বিশ্বাসী, আবার অনেকে শুধু কর্মে। ধর্মীয় বাণী বা বিশেষ কোনো বস্তুতে অনকের বিশ্বাস রয়েছে। নিজের থাকলে একটি এনে টেবিলে রাখতে পারেন। এটি বেশ আশাবাদী রাখে মানুষকে।

৫. একটি ডায়েরি রাখুন : অফিসে যে ব্যাগ নিয়ে আসেন সেখানে কিংবা টেবিলের ড্রয়ারে একটি ছোট ডায়েরি রাখুন। জরুরি কাজের সময়সূচি ও অন্যান্য তথ্য টুকে রাখুন এতে। সকালের নাশতা কিংবা দুপুরের খাবারের ফাঁকে এতে চোখ বোলাতে পারেন। এই ডায়েরিকে বিশেষজ্ঞরা কুঠারে ধার দেওয়ার উপকরণ বলে মন্তব্য করেন। নিজেকে গোছালো মনে হবে। কর্মসূচি নিয়ে মস্তিষ্কে ‘অ্যালার্ম’ প্রস্তুত করে রাখতে হবে না।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার

 


মন্তব্য