kalerkantho

25th march banner

আদা কেনা ও সংরক্ষণে পরামর্শ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ এপ্রিল, ২০১৬ ১৫:৩৩



আদা কেনা ও সংরক্ষণে পরামর্শ

বইয়ের বাইরের আবরণ দেখে তার ভেতরটা যাচাই করতে নেই। রান্নার উপকরণের ক্ষেত্রে এ কথাটা প্রযোজ্য আদার ক্ষেত্রে। বাইরের আবরণ দেখে আদার গুণাগুণ বিচার করা সম্ভব নয়। কিন্তু এর স্বাস্থ্যকর উপকারিতার শেষ নেই। গোটা বিশ্বেই তাই রান্নার অন্যতম মসলা বা উপকরণ হিসাবে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেছে আদা।

ঠাণ্ডা-সর্দিতে সব সময় উপকারী। শীতে উষ্ণতা দেয়। মাছ, মাংস বা যেকোনো তরকারিতে প্রধান উপকরণের একটি হিসাবে বহুকাল ধরে জনপ্রিয় আদা।

কাজেই খাদ্যপণ্য হিসাবে আদা টাটকা হওয়াই ভালো। সর্বোচ্চ ফ্লেভার পাওয়া যাবে। এখানে আদা কেনা থেকে শুরু করে সংরক্ষণ করা পর্যন্ত পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এখানে আদা কেনার আগে নিচের তথ্যগুলো জেনে নিন।

১. প্রথমেই মনে রাখবেন, টাটকা আদা কিনবেন। এতে ফ্লেভার তরতাজা থাকবে। আদার ত্বক অনেক পাতলা ও সুন্দর রংয়ের হলে বুঝে নিবেন এটা টাটকা। তা ছাড়া হাতে নিলেও বেশ ওজনদার বলে মনে হবে।

২. অল্প পরিমাণে আদা কিনবেন। এতে টাটকা থাকতে থাকতেই ব্যবহার শেষ করতে পারবেন। সাধারণত খুব বেশি পরিমাণ আদা ব্যবহার করতে হয় না। তাই এক কেজিরও কম পরিমাণ আদা কেনার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

৩. আদার ত্বকে দাগ লেগে থাকলে তা ব্যবহার করবেন না। তা ছাড়া ভিজে চুপসে রয়েছে এমন আদাও কেনা উচিত নয়। ভেজা আদায় ছত্রাক ধরার সুযোগ থাকে।

এখন জেনে নিন কিভাবে আদা সংরক্ষণ করবেন।

১. আদা প্রথমেই রেফ্রিজারেটরে না রেখে রুমের তাপমাত্রায় দুই দিন ধরে রাখুন। রেফ্রিজারেটরে রাখলে ফ্লেভার নষ্ট হয়ে যায়। কক্ষেই একটি তোয়ালে বা কাগজে মুড়ে বা প্লাস্টিকে জিপ করে রেখে দিতে পারেন।

২. আদা সংরক্ষণের আরেকটি জনপ্রিয় ও কার্যকর উপায় রয়েছে। একে কেটে স্পিরিট বা ভিনেগারে ভিজিয়ে ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন।

৩. আরেকটি উপায়ে এদের টাটকা রাখা যায়। টবে বা এমনি মাটিতে পুঁতে রাখুন। এতে স্বাদ ও গন্ধ দারুণ টাটকা থাকবে।
সূত্র : এনডিটিভি

 


মন্তব্য