kalerkantho


বিশেষ মুহূর্ত ধরা থাকুক দেয়ালেও

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০৯:২৫



বিশেষ মুহূর্ত ধরা থাকুক দেয়ালেও

বিয়ে, জন্মদিন, অ্যানিভার্সারি বা যেকোনো অনুষ্ঠান। এমনকী বিশেষ কোনো সভা বা ভ্রমণ। সেখানের প্রতিটি মুহূর্তই লেন্সবন্দি করতে চাই আমরা। লক্ষ্য একটাই, বিশেষ মুহূর্তের স্মৃতি যেন বিশেষই থাকে সারাজীবন। শুধু কী তাই। তা কেবলই মনের মণিকোঠায় জমা না রেখে, সেই স্মৃতি সর্বক্ষণ চোখের সামনেও ধরে রাখতে চান অনেকে। সে জন্য অনেকেই ছবি ফ্রেমবন্দি করে দেয়ালে টাঙিয়ে রাখেন। তবে সব ছবি সব ঘরের দেয়ালে মানায় না। এখন জেনে নেওয়া যাক কোথায় কোন ছবির ফ্রেম মানানসই।

১) সদর ঘরে ব্যক্তিগত ফটোফ্রেম রাখবেন না। ঘরে প্রবেশ করেই বাইরের লোকজনের আপনার ব্যক্তিগত ছবি ভালো নাও লাগতে পারে। বরং সেখানে ভ্রমণসংক্রান্ত কোনো প্রাকৃতিক দৃশ্যের ফ্রেম মানাবে।

২) বাড়ির বিশেষ কোনো সদস্যের বিশেষ মুহূর্তের ছবি বসার ঘরে রাখতে পারেন। এতে মনে হবে তিনি সব সময় সঙ্গেই আছেন। তিনি গর্ব করার মতো ব্যক্তি হলে অবশ্যই ফটোফ্রেম যেন বড় মাপের হয়।

৩) বিয়ের মুহূর্ত বা ব্যক্তিগত ছবি বাঁধিয়ে রাখতে পারেন নিজেদের বেডরুমে।

৪) পরিবারের গ্রুপ ফটো ফ্রেমবন্দি করতে পারেন ড্রয়িংরুমের জন্য।

৫) সন্তানের ছোটোবেলার হাসিমুখের ছবি রাখতে পারেন বসার ঘরে। যে কেউ সেই মিষ্টিমুখের ছবি দেখলেই, তার মন ভালো হয়ে যাবে।

৬) সন্তানের ঘরে বাবা মায়ের সঙ্গে গ্রুপ ফটোর ছবি রাখা যেতে পারে।

৭) একইভাবে অভিভাবকদের ঘরেও সন্তানের ছবি ফ্রেমবন্দি করে সাজিয়ে রাখতে পারেন।

৮) এখন দেয়াল সাজানো হয় নানাভাবে। কখনও দেয়ালে আঁকা হয় নানা ধরনের ছবি, ফুটিয়ে তোলা হয় নকশা। একই জিনিস সব ঘরে না করে কোনো একটি ঘরের দেয়াল শুধু ফটোফ্রেম দিয়েও সাজাতে পারেন।

৯) ফটোফ্রেম দিয়ে দেয়াল সাজানোর অর্থ, একসার দিয়ে তা টাঙিয়ে রাখলেন তা কিন্তু একেবারেই নয়। বরং দেয়ালে তা এমনভাবে সাজান যাতে তা একটি আকার হিসেবে প্রকাশ পায়।

১০) দেয়াল বড় হলে বড় মাপের ফটোফ্রেম দিয়ে তা সাজাতে পারেন। কিন্তু ছোটো দেয়ালে বড় বড় ফ্রেম বেমানান দেখাবে, খেয়াল রাখুন সেদিকেও।


মন্তব্য