kalerkantho

26th march banner

অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স সম্পন্ন করেন না ত্বকে সংক্রমণের রোগীরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ মার্চ, ২০১৬ ১২:০৩



অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স সম্পন্ন করেন না ত্বকে সংক্রমণের রোগীরা

নতুন এক গবেষণায় বলা হয়, ত্বকে সংক্রমণের শিকার রোগীরা কখনোই অ্যান্টিবায়োটিকের ডোজ প্রেসক্রিপশনের নির্দেশনা অনুযায়ী শেষ করেন না। আর এ কারণে নতুনভাবে সংক্রমণের শিকার হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। নতুন সংক্রমণের জন্যে আবারো নতুন করে চিকিৎসার প্রয়োজন হয়ে পড়ে।

আমেরিকারয় পরিচালিত ওই গবেষণায় দেখা গেছে, এস অরিয়াস স্কিন এবং সফট টিস্যু ইনফেকশনের ক্ষেত্রে গড়ে ৫৭ শতাংশ ওষুধ গ্রহণ করেন ভুক্তভোগীরা। হাসপাতাল থেকে চলে যাওয়ার পর বা চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন পাওয়ার পর আর তারা পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা নিতে পারেন না।

ক্যালিফোর্নিয়ার হারবার-ইউসিএলএ মেডিক্যাল সেন্টারের বিশেষজ্ঞ এবং প্রধান গবেষকলোরেন মিলার জানান, এ গবেষণার মাধ্যমে পরিষ্কার হয় যে, ত্বকে সংক্রমণের শিকার রোগীরা যেন পরিপূর্ণ চিকিৎসা গ্রহণ করেন সে বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের নতুন পদ্ধতি অলম্বন করতে হবে। স্বল্প সময়ের চিকিৎসাব্যবস্থা প্রয়োগ করতে হবে তাদের ওপর।

অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এজেন্ট অ্যান্ড কেমোথেরাপি জার্নালে প্রকাশিত হয় গবেষণাপত্রটি। এ গবেষণায় ১৮৮ জন রোগীকে পরীক্ষা করা হয়।

এই রোগীদের মধ্যে মাত্র ৮৭ জন তাদের চিকিৎসা পুরোপুরি গ্রহণ করেন বলে গবেষকরা জানিয়েছেন। বাকি ৮৭ জনের মধ্যে ৪০ জনের আবারো ৩০ দিনের জন্যে বাড়তি চিকিৎসার প্রয়োজন পড়ে। তাদের নতুন করে ত্বকে সংক্রমণ দেখা দেয়। এটি সংক্রমণ রীতিমতো ক্ষত সৃষ্টি করে এবং নতুন করে অ্যান্টিবায়োটিক নিতে হয়। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

 


মন্তব্য