নাক ডাকার কারণে শিশুর মারাত্মক-331696 | জীবনযাপন | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১০ আশ্বিন ১৪২৩ । ২২ জিলহজ ১৪৩৭


নাক ডাকার কারণে শিশুর মারাত্মক সমস্যা হতে পারে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৩৫



নাক ডাকার কারণে শিশুর মারাত্মক সমস্যা হতে পারে

আপনার শিশু যদি ঘুমের ঘোরে নাক ডাকে কিংবা শ্বাস নিতে সমস্যার কারণে নাক ও গলা থেকে প্রায়ই শব্দ হয় তাহলে এখনই সতর্ক হয়ে যান। কারণ গবেষকরা বলছেন, যে শিশুরা নাক ডাকে তাদের পরবর্তীতে বিভিন্ন বিষয় শিখতে সমস্যা হয়। এতে শিশু বেড়ে ওঠায় এবং নানা বিষয় আয়ত্ব করতে গুরুতর ব্যাঘাত ঘটতে পারে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

শিশুদের মাঝে মাঝে নাক ডাকার সমস্যা হতে পারে। এতে বাড়তি কোনো সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কম। তবে এ নাক ডাকার প্রবণতা যদি নিয়মিত দেখা যায় তাহলে শিশুর অভিভাবকের সতর্ক হতে হবে। কারণ এ নাক ডাকার সমস্যা দূর না করলে তাতে শিশুর মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।

গবেষকরা বলছেন, দিনের বেলায় ঘুমের সময় শিশুর যদি নাক ডাকার সমস্যা হয় তাহলে তা তার ক্লান্তিভাবের প্রকাশ। শিশু যদি বেশি ক্লান্ত হয় তাহলে এ ঘটনা ঘটতে পারে। আর এ বাড়তি ক্লান্তির কারণে শিশুর বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, শিশুর নিয়মিত নাক ডাকার ঘটনাটিতে ঘুমের সমস্যা হতে পারে। আর এতে স্লিপ অ্যাপনিয়া নামে একটি বড় সমস্যার আশঙ্কাও থেকে যায়। এতে দিনের বেলা ক্লান্তিভাব, কোথাও মনোযোগ দেওয়া ও শেখায় সমস্যা, বিছানায় প্রস্রাব করার প্রবণতা ও বৃদ্ধি কমে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়।

সুইডেনের ইউনিভার্সিটি অব গটেনবার্গের গবেষকরা এ বিষয়ে গবেষণাটি করেছেন। তারা জানাচ্ছেন, শিশুর নাক ডাকার সমস্যার কারণে 'স্লিপ অ্যাপনিয়া' হতে পারে। আর এতেই হতে পারে শিশুর নানা সমস্যা। তবে বহু পিতা-মাতাই শিশুর এ সমস্যাটি সঠিকভাবে ধরতে পারেন না। ফলে শিশুর নানা সমস্যা দীর্ঘদিন চলতে থাকে।

এ সমস্যা দূর করার জন্য প্রাথমিকভাবে নাক ডাকার কারণ নির্ণয় করতে হবে। সবচেয়ে সাধারণ যে সমস্যায় শিশুর নাক ডাকা দেখা যায় তার মধ্যে রয়েছে টনসিল। এটি দূর করতে পারলে বহু শিশুরই নাক ডাকা সমস্যা দেখা দূর হবে। এ ছাড়া আরও কিছু কারণে শিশুর নাক ডাকার সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ কারণগুলো দূর করার জন্য একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। এ বিষয়ে গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে ল্যারিগোলজি অ্যান্ড ওটোলজি জার্নালে।

মন্তব্য