kalerkantho


শিক্ষা বাণিজ্য বন্ধ হোক

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



শিক্ষা বাণিজ্য বন্ধ হোক

শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার। শুধু শিক্ষা নয়, আমাদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। আর শিখতে গেলে প্রয়োজন জ্ঞানবাহকের। সেই জ্ঞানবাহক হচ্ছেন শিক্ষক। অথচ শিক্ষকদের কেউ কেউ পরিণত হচ্ছেন অচল জ্ঞানবাহকে। তাঁদের অনেকেই নামমাত্র শিক্ষা দান করেন, বিশেষ করে কিন্ডারগার্টেন স্কুলে। তাঁদের প্রধান ভাবনা অর্থ উপার্জন করা, সুশিক্ষায় শিক্ষিত করা নয়। বছরের আট মাস যেতেই প্রচারকাজ শুরু। আর তা চলতে থাকে পরবর্তী বছরের মার্চ পর্যন্ত। মাইকের শব্দের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ হয়ে যায় এলাকাবাসী। মফস্বল এলাকায় বেশি হয়। আর স্কুল ব্যানারের কারণে গাছের সবুজ পাতা পর্যন্ত দেখা যায় না। নিজেদের সবার সেরা প্রমাণ করতে চায় প্রতিটি কিন্ডারগার্টেন স্কুল। পড়ানোর সামর্থ্য পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত। অথচ জেএসসি, এসএসসি পর্যন্ত তাদের কার্যক্রম চলতে থাকে। নিজস্ব বিদ্যালয় কোড নেই। অন্য এমপিওভুক্ত স্কুলের মাধ্যমে বোর্ড পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করানো হয়। তারা শুধু কোচিং করায়। প্রায় ৮৮ শতাংশ কিন্ডারগার্টেন স্কুলে জেএসসি ও এসএসসি শিক্ষার্থীদের পড়ানোর মতো যোগ্য শিক্ষক নেই। তাঁরা জ্ঞানদানের নাম করে ব্যবসা করছেন, যা ভবিষ্যতের জন্য হুমকিস্বরূপ। বন্ধ করতে হবে শিক্ষা বাণিজ্য।

ইস্রাফিল আকন্দ রুদ্র, শ্রীপুর, গাজীপুর।



মন্তব্য