kalerkantho


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব

২৯ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



প্রযুক্তির ছোঁয়ায় এখন প্রায় কেউই মিডিয়ার বাইরে নয়। অল্প বয়স থেকে শুরু করে বয়সী মানুষও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আওতাধীন। মুহূর্তেই যেকোনো ঘটনা ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। আমরা আসলে বুঝে উঠতে পারি না ঠিক কোনটা সত্য এবং কোনটা মিথ্যা। এ ক্ষেত্রে আমাদের ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়কে কাজে লাগাতে হবে কিছুক্ষণের জন্য। একটু দৃষ্টি দিলেই আমরা বুঝে উঠতে পারি, কোনটির সত্যতা কতটুকু। কিন্তু আমরা তা যাচাই-বাছাই না করেই শুধু চোখ বুলাই আর শেয়ার দিই ইচ্ছেমতো। কোনো একটি দুর্ঘটনার সংবাদ শোনার পর আমরা ব্যথিত হই, ক্ষোভ জমে ওঠে আমাদের। আর সেই উত্তেজিত মস্তিষ্ককে কাজে লাগিয়ে প্রচার করি গুজবের। কোথাও কোনো শিশুকে হত্যার খবর শোনার পর জানা গেল তার পরিবারের আরো দুই সদস্য নিখোঁজ। এ ক্ষেত্রে একটু ভেবে নিতে হবে বিশ্বাসের আগে। কারণ একজন হত্যার পরে একই পরিবারের দুই সদস্য নিখোঁজ হওয়াটা অস্বাভাবিক। কিন্তু আমরা তখন উগ্র মস্তিষ্কে থাকায় কিছু না ভেবেই বিশ্বাস করে ফেলি। এভাবে ঘটনার প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে গুজব চিহ্নিত করতে হবে। না হয় আমরা অজান্তেই হয়তো গুজব ছড়াব, যা অনুচিত।

সোহাগ মনি

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়।



মন্তব্য