kalerkantho


সবিশেষ

অবশেষে জুলিয়েটের সন্ধান!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



অবশেষে জুলিয়েটের সন্ধান!

বয়স বছর দশেক তো হবেই। এ অবস্থায় পাত্রী না পেলেই নয়। কিন্তু ‘জুলিয়েট’-এর খোঁজ দিতে পারছিলেন না কেউ। বলিভিয়ার সংরক্ষণাগারের ট্যাংকে একাই দিন কাটছিল ‘রোমিও’র।

রোমিও একটি বিশেষ প্রজাতির ব্যাঙ। প্রায় এক দশক আগে তাকে বলিভিয়ার ‘মেঘ অরণ্য’ (সারা বছর মেঘে ঢাকা থাকে) থেকে উদ্ধার করেন বিজ্ঞানীরা। ওই জঙ্গলে তার স্বজাতি কিংবা অন্য প্রজাতির ব্যাঙেরা তখন প্রাণঘাতী ছত্রাকজনিত রোগে আক্রান্ত। বিজ্ঞানীরা তাকে তুলে আনেন সংরক্ষণাগারে। আশায় ছিলেন, ওকে বাঁচিয়ে যোগ্য ‘পাত্রী’ খুঁজে বের করা হবে। পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন হতে বসা তার প্রজাতিকে রক্ষা করবে রোমিও।

কিন্তু সন্ধানে নেমে মাথায় হাত পড়ে বিজ্ঞানীদের। ওই প্রজাতির কোনো ব্যাঙ মিলছিল না। শেষে ‘ওয়ার্ল্ডস লোনলিয়েস্ট ফ্রগ’ নামে একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট খোলেন বিজ্ঞানীরা। সেই সঙ্গে ‘ম্যাচ ডটকম’ নামে একটি প্রফাইলও খোলা হয়। রোমিওর অসহায় অবস্থা দেখে সাহায্যের হাত বাড়ান অনেকে। ডলার ওঠে ২৫ হাজার। সেই অর্থ দিয়ে রোমিও প্রেমিকার সন্ধানে একটি বিশেষজ্ঞ দল পাঠানো হয়েছিল মেঘ অরণ্যে। সুখবর নিয়েই ফিরেছেন বিজ্ঞানীরা। জুলিয়েটকে খুঁজে পান প্রকৃতিবিদ টেরেসা কামাচো বাদানি। খুব শিগগির ব্যাঙের বিয়ে দেওয়া হবে।

বিশেষজ্ঞদের আশা, দুজনের একে অন্যকে মনে ধরবে। সন্তানও আসবে। বাচ্চাদের আবার জঙ্গলেই পাঠানো হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। যাতে তারা মেঘ অরণ্যে নিজেদের ঘরেই বড় হতে পারে। সূত্র : আনন্দবাজার।



মন্তব্য