kalerkantho

হেলপারের ধাক্কায় প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

সড়ক দুর্ঘটনায় আরো ১০ জেলায় নিহত ১৩

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



হেলপারের ধাক্কায় প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

হযরত ওমর

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বাসের ধাক্কায় এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, বাসে উঠতে চাইলে হেলপার ওই স্কুলছাত্রকে ধাক্কা মারে। এতে হযরত ওমর নামে ওই ছাত্র বাসের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে রাস্তায় ছিটকে পড়ে। ওমর চন্দ্রা এলাকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারি স্কুলে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ত।

এদিকে গতকাল রাজধানীর মিরপুর, টাঙ্গাইলের কালিহাতী, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ, নওগাঁর মান্দা, কুমিল্লার লাকসাম, রংপুরের পীরগঞ্জ ও লক্ষ্মীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানীতে চলমান ‘ট্রাফিক পক্ষ’র  মধ্যে বাসচাপায় মৃত্যু হয়েছে এক গার্মেন্টকর্মীর। কালিহাতীতে দূরপাল্লার বাস খাদে পড়ে গেলে মৃত্যু হয় দুজনের। আর বাস খালে পড়ে দুজনের মৃত্যু হয় বেগমগঞ্জে। রংপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছে তিন মামাতো-ফুফাতো ভাই-বোন। লাকসামে বাসচাপায় মারা গেছে সিএনজি অটোরিকশার দুই যাত্রী। মান্দায় পৃথক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় নারীসহ দুজনের। পিকআপের নিচে পড়ে এক শ্রমিক মারা গেছে লক্ষ্মীপুরে। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে বিস্তারিত—

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি জানান, কালিয়াকৈরে বাসের নিচে চাপা পড়ে হযরত ওমর (১২) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল দুপুরে স্কুল থেকে ফেরার পথে চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকার ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে একটি বাস তাকে চাপা দেয়। তাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওমরের। সে চন্দ্রা পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার শিমুল হোসেনের ছেলে। পড়ত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারি স্কুলে সপ্তম শ্রেণিতে। ওমরদের গ্রামের বাড়ি যশোরের চৌগাছায়। তার মা-বাবা স্থানীয় গার্মেন্টে কাজ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওমর বাসস্ট্যান্ডে আজমেরী পরিবহনের একটি বাসে ওঠার চেষ্টা করে। এ সময় ওই বাসের হেলপার তাকে উঠতে না দিয়ে উল্টো ধাক্কা দেয়। এতে সে বাসের সঙ্গে আরেকবার ধাক্কা খেয়ে সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে যায়। উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলেও চিকিৎসক ওমরকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ বাসটি জব্দ করেছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনন্দ কুমার বলেন, ‘যাত্রীবাহী পরিবহনগুলো ছাত্র-ছাত্রীদের গাড়িতে নিতে চায় না। প্রায়ই গাড়িতে ওঠা নিয়ে ছাত্রদের সঙ্গে চালক-হেলপারদের ঝগড়া হয়। আজ (বৃহস্পতিবার) ওমরও আজমেরী পরিবহনের বাসে উঠতে গলে হেলপার তাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়।

রংপুর অফিস জানায়, পীরগঞ্জে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মামাতো-ফুফাতো ভাই-বোনসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় পীরগঞ্জ উপজেলার বিশ মাইল এলাকায় রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। হাইওয়ে পুলিশ জানায়, সানেরহাট ইউনিয়নের হরিরাম সাহাপুর গ্রামের বাসিন্দা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহীনুর রহমান (২৫), আজগার আলীর ছেলে মুশফিকুর রহমান (১৮) ও আব্দুল কাইয়ুমের মেয়ে রুমী বেগম (২৩) একই মোটরসাইকেলে শঠিবাড়িহাটে যাচ্ছিলেন। পথে হানিফ এন্টারপ্রাইজের একটি বাস মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তাঁরা নিহত হন।

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি জানান, সেখানে বাসচাপায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে চালক ও অপর দুই যাত্রী। গতকাল সন্ধ্যায় উপজেলার চন্দনা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন—পশ্চিমগাঁও মুসলিমপাড়ার ইদ্রিস বাবুর্চি (৫৫) ও লাকসাম পূর্ব ইউনিয়নের নরপাটি আমতলী এলাকার আলম (৩২)।

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি জানান, কালিহাতীতে প্রান্তিক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে গেলে দুজন নিহত ও ২৫ জন আহত হয়। গতকাল দুপুরে কালিহাতীর বাংড়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। কালিহাতী থানার ওসি বলেছেন, একটি ট্রাককে জায়গা দিতে গিয়ে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। আহতদের আটজনের অবস্থা গুরুতর। নিহত দুজনের মরদেহ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

নোয়াখালী প্রতিনিধি জানান, বেগমগঞ্জ উপজেলায় সুগন্ধা সুপার সার্ভিসের একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে পড়ে গেলে দুজনের মৃত্যু হয়। আহত হয় ২৫ যাত্রী। গত বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার জমিদারহাট বড়পুল এলাকার চৌমুহনী-ফেনী আঞ্চলিক মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুজন হলেন—বাসচালকের সহকারী (হেলপার) আনোয়ার হোসেন (৫৮) ও লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার যাত্রী বজলুর রহমান (২৯)। বাসটি নোয়াখালীর সোনাপুর থেকে ফেনী যাচ্ছিল।

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি জানান, মান্দায় পৃথক দুর্ঘটনায় এক নারীসহ দুজনের মৃত্যু হয়। একটি দুর্ঘটনা ঘটে গতকাল দুপুর ১২টার দিকে; মুক্তিযোদ্ধা বালিকা বিদ্যালয়ের অদূরে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে। সেখানে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত হন ভ্যানযাত্রী আলতা বেগম (৪০)। তিনি উপজেলার চকগোপাল গ্রামের ইমান আলীর স্ত্রী। আর সকাল ১১টার দিকে মহানগর নিচপাড়া এলাকায় পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় মৃত্যু হয় মোটরসাইকেল আরোহী মামুনের। তিনি রাজশাহীর তানোর উপজেলার ধানুরা গ্রামের বাসিন্দা।

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি জানান, মালবাহী পিকআপের চাপায় ইদ্রিস মিয়া (৩৫) নামে এক বালু শ্রমিকের মৃত্যু হয়। গতকাল দুপুরে লক্ষ্মীপুর-মজুচৌধুরীর হাট সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ইদ্রিস মিয়া সদর উপজেলার শাকচর গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে। পুলিশ জানায়, পিকআপে বালু তুলছিলেন ইদ্রিস মিয়া। ওই সময় পেছন থেকে দ্রুতগতির একটি মালবাহী পিকআপ তাঁকে চাপা দেয়।

 

মন্তব্য