kalerkantho


সুষ্ঠু ভোটের জন্য সহযোগিতা চাইল ঐক্যফ্রন্ট

সম্পাদকদের সঙ্গে মতবিনিময়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সুষ্ঠু ভোটের জন্য সহযোগিতা চাইল ঐক্যফ্রন্ট

রাজধানীর একটি রেস্তোরাঁয় গতকাল প্রিন্ট মিডিয়ার সম্পাদকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। ছবি : কালের কণ্ঠ

আসছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সহযোগিতা চেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ঐক্যফ্রন্ট যাতে সুষুম নির্বাচনের পরিবেশ গঠন ও রক্ষায় সঠিকভাবে কাজ করতে পারে সে জন্যও সম্পাদকদের পরামর্শ ও সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে লেকশোর হোটেলে সম্পাদকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় শেষে ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের এ কথা জানান। তিনি বলেন, ‘অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য আমরা সম্পাদকদের পরামর্শ চেয়েছি। তাঁরা বিভিন্ন ধরনের পরামর্শ দিয়েছেন। আমরা তাঁদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছি। তাঁরা যৌক্তিক যেকোনো বিষয়ে সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন।’ এক প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, নির্বাচন সত্যিকার অর্থে অবাধ ও নিরপেক্ষ যেন হয় সেটাই তাঁদের লক্ষ্য। এটাকেই তাঁরা সত্যিকার অর্থে মূল্যবান মনে করেন। ঐক্যফ্রন্টের সেই চেষ্টা থাকবে। তিনি বলেন, সরকারের আচরণের বিভিন্ন দিক তাঁরা চিহ্নিত করেছেন। ঐক্যফ্রন্ট আশা করে, সংবাদপত্র এ ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখবে।

গতকাল বিকেল ৩টায় শুরু হয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা সম্পাদকদের সঙ্গে এই মতবিনিময় করেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। সেখানে সম্পাদকরা বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করেন। ঐক্যফ্রন্ট নেতারা সেসবের জবাব দেন। এ ছাড়া বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনাও হয়েছে সম্পাদক ও নেতাদের মধ্যে।

সভা শেষে ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, ‘অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। বিজ্ঞ সম্পাদকরা যেসব মতামত দিয়েছেন, তা চলার পথে আমাদের কাজে লাগবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘সম্পাদকরা বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের বিষয়ে আমরা তাঁদের কাছ থেকে জোরালো ভূমিকা প্রত্যাশা করি। তাঁরাও আমাদের অনেক বিষয়ের সঙ্গে যেমন একমত হয়েছেন, বেশ কিছু বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করে মতামতও দিয়েছেন।’

মতবিনিময় সভায় অংশ নেন সিনিয়র সাংবাদিক রিয়াজ উদ্দিন, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, নিউএজ সম্পাদক নুরুল কবির, আমাদের নতুন সময় সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, সাপ্তাহিক সম্পাদক গোলাম মোর্তজা, ঢাকা ট্রিবিউন সম্পাদক জাফর সোবহান, দিনকাল সম্পাদক রেজোয়ান সিদ্দিকী, ইনকিলাবের যুগ্ম সম্পাদক মুন্সি আবদুল মান্নান, এএফপির ব্যুরো চিফ শফিকুল আলম, রয়টার্সের সিরাজুল ইসলাম কাদির, ডেইলি স্টারের প্ল্যানিং এডিটর সাখাওয়াত লিটন, সাপ্তাহিক বুধবার সম্পাদক আমির খসরু, যুগান্তরের প্রধান প্রতিবেদক মাসুদ করিম, বাংলাদেশ প্রতিদিনের যুগ্ম বার্তা সম্পাদক আবু তাহের প্রমুখ।

অন্যদিকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন, বিএনপি মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, জেএসডির আ স ম আব্দুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ঐক্যফ্রন্ট নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, বিএনপির বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভার মাঝামাঝি সভা থেকে বিরিয়ে আসেন আমাদের নতুন সময় সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান ও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী। এ সময় তৌফিক ইমরোজ খালিদী উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের কাছে জানতে চেয়েছিলাম, ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে জয়ী হলে প্রধানমন্ত্রী কে হবেন? কিন্তু এর কোনো উত্তর পাইনি।’

সভার একটি সূত্র কালের কণ্ঠকে জানায়, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান তাঁর বক্তব্য দেওয়ার সময় বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের শাসনামলে চাতুরী করে আওয়ামী লীগকে ৩৯টি আসন দিয়েছিল। আওয়ামী লীগ তা সত্ত্বেও ওই নির্বাচন বর্জন করেনি। এরশাদ আমলেও কারচুপি করে নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে হারিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তবুও আওয়ামী লীগ নির্বাচনের ফল মেনে নিয়েছিল। তিনি ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত করার প্রক্রিয়া এগিয়ে নেওয়ার স্বার্থে আপনারা কোনো অবস্থাতেই নির্বাচন বর্জন করবেন না।’

নিউএজ সম্পাদক নুরুল কবির বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের পথের প্রতিবন্ধকতাগুলো কী তা সাংবাদিকদের কাছে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের জানার দরকার নেই। ঐক্যফ্রন্ট নেতারা যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন তাঁরা কী কী প্রতিবন্ধকতা করেছিলেন তা তো তাঁদের মনে থাকার কথা। সে অভিজ্ঞতা থেকে প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিত করে তা দূর করার আহ্বান জানান তিনি।



মন্তব্য