kalerkantho


সবিশেষ

জুরাসিক যুগের মাংসাশী মাছের সন্ধান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



জুরাসিক যুগের মাংসাশী মাছের সন্ধান

জুরাসিক যুগের মাংসাশী মাছের জীবাশ্মের সন্ধানের কথা জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এটিকে মাংসাশী মাছের শুরুর দিকের প্রজাতি বলে মনে করা হচ্ছে। ১৫ কোটি বছর আগের এ মাছের আধুনিক কালের পিরানহার মতো তীক্ষ দাঁত ছিল। এই দাঁত মাংস ও অন্য মাছের পাখনা খেতে কাজে লাগত। সম্প্রতি এসংক্রান্ত গবেষণা নিবন্ধ ‘কারেন্ট বায়োলজি’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা ওই মাছটিকে ‘পিরানহেমসডন পিনাটোমাস’ নাম দিয়েছেন। পিরানহা ও ডানা কাটা মাছের বৈশিষ্ট্যের সংমিশ্রণ থেকে এ নামকরণ করা হয়েছে। মাছটির জীবাশ্মের সন্ধান মিলেছে দক্ষিণ জার্মানিতে। একই সঙ্গে ওই মাছের শিকার হওয়া অন্য মাছের দেহ ও পাখনা পাওয়া গেছে।

অস্ট্রেলিয়ার জেমস কুক ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. ডেভিড বেলউড বলেন, ‘আমরা ওই এলাকা থেকে অন্যান্য মাছও পেয়েছি, যেগুলোর পাখনা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। শিকারি মাছের পেটে একটি মৃত মাছ মিলেছে, যার পাখনা ঠোকরানো ছিল।’

ওই মাংসাশী মাছের পিরানহার মতো দাঁত দেখে প্রথম বিস্মিত হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন জুরা মিউজিয়ামের পরিচালক মার্টিনা কোল্বল-এবার্ট। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের মাছগুলো বিখ্যাত ছিল তাদের শক্ত দাঁতের জন্য। শক্ত বস্তু খাওয়ার জন্য তারা ওই দাঁত ব্যবহার করত। সবচাইতে আশ্চর্যের বিষয়, এ ধরনের মাছের অস্তিত্ব সেই জুরাসিক যুগেও ছিল। এই মাছ গবেষণার ক্ষেত্রে নতুন দুয়ার খুলতে পারে।’

গবেষকরা বলছেন, এই মাছের দাঁত পিরানহার মতো তীক্ষ হলেও দাঁতের নকশা সবার চেয়ে আলাদা। যা আক্রমণ করার জন্যই তৈরি করা হয়েছে। তীক্ষতার মাত্রা এত এই পরিমাণ, যা শিকারিকে চূর্ণ করে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। এই মাছগুলো মাংস খাওয়ার জন্য তাদের দাঁত ব্যবহার করত। এ ছাড়া অন্য মাছের পাখনা ছিঁড়ে খেত। ফলে যে মাছের পাখনা ছিঁড়ে খেত সেই মাছ আস্তে আস্তে মারা যেত। সূত্র : বিবিসি, সিএনএন।



মন্তব্য