kalerkantho


সবিশেষ

জয়ের লক্ষ্য যখন ৬ রান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



জয়ের লক্ষ্য যখন ৬ রান

ক্রিকেটভক্তরা এখন এই অপেক্ষায় আছে, কবে টি-টোয়েন্টিতে ৩০০ রান উঠবে; আর ওয়ানডেতে উঠবে ৫০০ রান। ঠিক সেই সময় যদি লক্ষ্যমাত্রা হয় মাত্র ছয় রান, তা খামখেয়ালি ব্যাপারই বটে। কিন্তু গতকাল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এশিয়ার আঞ্চলিক বাছাইপর্বে মালয়েশিয়া ও মিয়ানমারের মধ্যেকার ম্যাচটিতে তেমনটাই ঘটেছে।

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে মিয়ানমার। ১০ ওভার ১ বলে ৮ উইকেট হারিয়ে ৯ রান তুলতে সমর্থ হয় তারা। দলের ছয় ব্যাটসম্যানই রানের খাতা খুলতে পারেননি। সর্বোচ্চ তিন রান যিনি করেছেন, সেই ওয়াই কে কো বল খরচ করেছেন ১২টি। আর যে ৯ রান এসেছে, তার তিন রানই লেগবাই থেকে।

মালয়েশিয়ার পক্ষে বাঁহাতি স্পিনার পবন দ্বীপ সিং ৪ ওভার বল করে ১ রান দিয়ে পাঁচটি উইকেট নেন। পরে বৃষ্টির কারণে মালয়েশিয়ার সামনে লক্ষ্য দেওয়া হয় মাত্র ছয় রান। ওভার বেঁধে দেওয়া হয় আটটি। সে রান ১০ বলে তুলে ফেলে মালয়েশিয়া। উইকেট হারাতে হয় দুটি।

গতকাল মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে অনুষ্ঠিত হয় এ ম্যাচ। তবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির মর্যাদা না থাকায় এই  রেকর্ড নথিভুক্ত হবে না।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড নেদারল্যান্ডসের। ২০১৪ সালে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৯ রানে অলআউট হয় তারা। অস্ট্রেলিয়ার হাতে রয়েছে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। সেটা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে; ২৬৩। ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বনিম্ন ইনিংসও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের। ২০০৪ সালে ৩৫ রানে অলআউট হয়ে যায় দলটি। আর ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটি এখন ইংল্যান্ডের; ৪৮১। যদিও কয়েক বছর ধরে ‘সর্বোচ্চ রানের’ রেকর্ডটি কোনো দলই বেশি দিন ধরে রাখতে পারছে না। সূত্র : বিবিসি।

 



মন্তব্য