kalerkantho


চাঁপাইনবাবগঞ্জ

কেন্দ্র যেভাবে বলবে সেভাবেই কাজ হবে

আলহাজ আমিনুল ইসলাম
সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপি

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



কেন্দ্র যেভাবে বলবে সেভাবেই কাজ হবে

কালের কণ্ঠ : আসন্ন নির্বাচনে বিএনপির প্রস্তুতি কেমন?

আমিনুল ইসলাম : বিএনপি নির্বাচনমুখী গণতান্ত্রিক দল। আমরা সব সময় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। ক্ষমতাসীনদের হামলা-মামলার পরও নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করেই নির্বাচনে যাব আমরা।

কালের কণ্ঠ : জেলার তিনটি নির্বাচনী এলাকায় বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব আছে।  নির্বাচনে এর কোনো প্রভাব পড়বে?

আমিনুল ইসলাম : বিএনপির মতো বড় দলে নেতাকর্মীদের মধ্যে কিছুটা মতবিরোধ থাকা অস্বাভাবিক নয়। স্থানীয় রাজনীতিতে দ্বন্দ্ব থাকতে পারে; কিন্তু সবাই তো বিএনপিকে ভালোবাসে। সবাই খালেদা জিয়ার সৈনিক। বিএনপি ও ধানের শীষের প্রশ্নে কোনো দ্বন্দ্ব বা বিরোধ নেই। নির্বাচন এলে সবাই ধানের শীষের পক্ষে কাজ করবে।

কালের কণ্ঠ : জেলায় বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা কেমন?

আমিনুল ইসলাম : বরাবরই চাঁপাইনবাবগঞ্জ বিএনপির ঘাঁটি। গত ১০ বছরে পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করলেও একজন কর্মীরও মনোবল ভাঙতে পারেনি। ইউনিয়ন, উপজেলা, পৌরসভা, জেলায় দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি রয়েছে। তারা দলের জন্য কাজ করছে। নির্বাচনের জন্য সাংগঠনিকভাবে প্রস্তুত রয়েছে দলের নেতাকর্মীরা।

কালের কণ্ঠ : স্থানীয় রাজনীতিতে শরিক দল জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক তো ভালো না। সদর ও শিবগঞ্জ আসনে তারাও ২০ দলীয় জোটের মনোনয়ন চাইছে। 

আমিনুল ইসলাম : জোটের শরিক দল হিসেবে জামায়াত মনোনয়ন চাইতেই পারে। এটা কোনো সমস্যা না। কেন্দ্রীয় নেতারা বিষয়টি সুরাহা করবেন। কেন্দ্র যেভাবে বলবে, সেভাবেই কাজ হবে।

কালের কণ্ঠ : তিনটি আসনেই বিএনপির একাধিক মনোনয়নপ্রত্যাশী আছেন। আগামী নির্বাচনে এর কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়বে কি?

আমিনুল ইসলাম : বড় দলে একাধিক মনোনয়নপ্রত্যাশী থাকবেই। সবাই চায় দলের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করতে। তবে আগামী নির্বাচনে যাকেই ধানের শীষের মনোনয়ন দেওয়া হবে তার পক্ষেই সবাই কাজ করবে। নির্বাচনে এর কোনো প্রভাব পড়বে না।

কালের কণ্ঠ : জেলার তিনটি আসনে জয়ের ব্যাপারে আপনারা কতটা আশাবাদী?

আমিনুল ইসলাম : চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষ সব সময় বিএনপিকে ভোট দিতে ভালোবাসে। জনগণ ধানের শীষে ভোট দেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছে। বিএনপির শাসনামলে চাঁপাইনবাবগঞ্জে যে উন্নয়ন হয়েছে তার কিছুই করতে পারেনি গত ১০ বছরে আওয়ামী লীগ। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের শাসনামলে যেভাবে সাধারণ মানুষকে মামলা দিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে, তা থেকে সবাই মুক্তি চায়। এ কারণে জনগণ বিএনপিকে ভোট দিতে চায়। দেশে যদি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনটি আসনে বড় ব্যবধানে বিএনপির প্রার্থীরা নির্বাচিত হবেন।



মন্তব্য