kalerkantho


সবিশেষ

টাকা দিয়ে মেলে বউ!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



টাকা দিয়ে মেলে বউ!

টাকা দিয়ে বউ কেনার মতো ভয়াবহ ঘটনা নাইজেরিয়ার অনেকের কাছে এখনো নিত্যদিনের ব্যাপার। মূলত দেশটির বেশেরেসহ বেশ কয়েকটি সম্প্রদায়ের দারিদ্র্যপীড়িত পরিবারের শিশুদের বিয়ের নামে কিনে থাকে প্রভাবশালীরা। ক্রস রিভার রাজ্যের ওই সম্প্রদায়ে মানি ম্যারেজ বা অর্থের বিনিময়ে শিশুকন্যাদের বিয়ে দেওয়া একটি প্রচলতি প্রথা।

বেশেরে সম্প্রদায়ের তরুণী ডরফির বয়স এখন বিশের কোঠায়। যখন তাঁকে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁর বয়স ছিল মাত্র ১০ কি ১১। তাঁকে এমন এক ব্যক্তির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল যাঁর বয়স তাঁর নানা-দাদার চাইতেও বেশি। ডরফির মা ও চাচা টাকার জন্য তাঁকে ওই বৃদ্ধের কাছে বিক্রি করেছিলেন। বাধ্য করেছিলেন মানি ম্যারেজ করতে। এ ধরনের বিয়েতে শিশুকন্যাদের বিক্রি করে দেওয়ায় তারা তাদের স্বামীর পরিবারের সম্পত্তিতে পরিণত হয়।

সেই দিনগুলোর কথা মনে করে ভয়ে শিউরে ওঠেন ডরফি। তিনি বলেন, ‘লোকটি আমার কাছে শারীরিক চাহিদা পূরণ করতে চাইলে আমি বলতাম—না, আমি এমনটা হতে দেব না, কারণ আপনি আমার বয়সের না। আপনার ছেলেমেয়েরাও আমার অনেক বড়। যখন আমি মানা করতাম, তখন তিনি আরো দুজন লোক ডেকে আমার ওপর জবরদস্তি করতেন।’

এভাবেই অমানুষিক নির্যাতনের একপর্যায়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন ডরফি। অথচ সন্তান ধারণ করার মতো বয়সও তখন তাঁর হয়নি। মানি ওয়াইফ বা অর্থের বিনিময়ে বিক্রি হওয়া বউ হওয়ায় ডরফির সাহায্য চাওয়ার জায়গা ছিল না।

স্থানীয় মিশনারি ও শিশু অধিকার আন্দোলনকারী পস্তোর রিচার্ড বলেন, ‘একজন মানি ওম্যানের কোনো সম্মান থাকে না। তাদের স্কুলে যাওয়ার অনুমতি নেই। তাদের ঠিকঠাক খেতেও দেওয়া হয় না। সে সবার উচ্ছিষ্ট খায়। শিশুশ্রম থেকে শুরু করে অমানবিক যৌন নিপীড়নের শিকার হয়। অনেকে অন্তঃসত্ত্বা হলেও মায়ের বাড়ি যাওয়ার সুযোগ থাকে না।’ সূত্র : বিবিসি।



মন্তব্য