kalerkantho


ইভিএম ঠেকানোর ঘোষণা যুক্তফ্রন্টের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ইভিএম ঠেকানোর ঘোষণা যুক্তফ্রন্টের

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারে নির্বাচন কমিশনের পরিকল্পনার বিরোধিতা করেছে যুক্তফ্রন্ট। ফ্রন্টের নেতারা বলেছেন, যেকোনো মূল্যে ইভিএম ব্যবহার ঠেকাবেন তাঁরা।

ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত মানবেন না জানিয়ে ফ্রন্টের নেতারা বলেছেন, ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের মতো বিশ্বের উন্নত দেশগুলো এই পদ্ধতি বাতিল করলেও ভোট লুটপাটের জন্য বাংলাদেশে এই পদ্ধতি চালুর সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সরকারর অনুগত নির্বাচন কমিশন।

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোডে বিকল্পধারা বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলটির ঢাকা মহানগর উত্তর শাখা আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে ফ্রন্টের নেতারা এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ‘দেশের নির্বাচন কমিশন হঠাৎ করে ঘোষণা করল, ইভিএমে ভোট নেবে। ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, হল্যান্ড, আয়ারল্যান্ডসহ বিশ্বের সব দেশ এটি বাতিল করেছে। এটি শুধু বাংলাদেশে চালু করা হচ্ছে। এটির কী প্রয়োজন, বুঝে আসে না।’

নিরপেক্ষ নির্বাচন দাবি করে বিকল্পধারার প্রধান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে। নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে হবে। এ ছাড়া নির্বাচনের অন্তত এক মাস আগে সারা দেশে সেনা মেতায়েন করতে হবে। সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতাও দিতে হবে।’

আ স ম আব্দুর রব বলেন, ‘সরকার ইভিএমের মাধ্যমে ভোট লুটপাটের পরিকল্পনা করেছে। এ জন্য গোপনে একটি বড় পরিকল্প করেছে। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সেনাবাহিনীর একজন মেজরের নেতৃত্বে ৫০ হাজার আনসার সদস্যকে বিশেষ প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। এই বাহিনী ইভিএমে সূক্ষ্মভাবে ভোট কারচুপির কাজ করবে। এ ছাড়া নির্বাচনের আগে একটি বিশেষ বাহিনী গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। যারা দেশের মানুষকে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে বাধ্য করবে।’

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘সরকার বুঝতে পেরেছে, কোনো রকম সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের অস্তিত্ব থাকবে না। তাদের প্রত্যেক প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। এ জন্য ইভিএমের মাধ্যমে কারচুপি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন বিকল্প ধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন প্রমুখ।



মন্তব্য