kalerkantho


ঈদে রাজনীতি

ভোটের কাজে লাগাতে তৎপর ক্ষমতাসীনরা

তৈমুর ফারুক তুষার   

২১ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



ভোটের কাজে লাগাতে তৎপর ক্ষমতাসীনরা

এবার ঈদুল আজহার উৎসবকে নির্বাচনী মাঠ গোছানোর কাজে লাগাতে তৎপর হয়েছেন আওয়ামী লীগ ও এর নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিক দলগুলোর কেন্দ্রীয় নেতা, মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা। তাঁরা ঈদ সামনে রেখে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটারদের মন জয় করতে উদ্যোগী হয়েছেন। ক্ষমতাসীন এই জোটের গুরুত্বপূর্ণ বেশির ভাগ নেতা, মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য নিজ নির্বাচনী এলাকায় ঈদ উদ্‌যাপন করবেন।

আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা জানান, জাতীয় নির্বাচনের আগে দলীয় কোন্দল নিরসন করতে ঈদ উৎসবকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছেন অনেক মন্ত্রী, এমপি। তাঁরা উৎসবের আমেজ কাজে লাগিয়ে মান-অভিমান নিয়ে দূরে থাকা দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে টানার চেষ্টা করছেন। দলীয় নেতাকর্মীদের ঈদের দাওয়াত ও উপহার দিয়ে মান ভাঙানোর চেষ্টা করছেন মন্ত্রী-এমপিরা।

কেউ কেউ নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের জন্য একটি করে গরু কিনে দিয়েছেন। কেউ আবার প্রতিটি ইউনিয়নের দলীয় নেতাকর্মীদের জন্য নগদ অর্থ উপহার দিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের সংশ্লিষ্ট নেতারা জানান, নির্বাচন সামনে রেখে এবারের ঈদে দুস্থদের জন্য ভিজিএফ কার্ডের বরাদ্দ চালের পরিমাণ দ্বিগুণ করা হয়েছে। অন্যবার ১০ কেজি চাল দেওয়া হলেও এবার দেওয়া হচ্ছে ২০ কেজি করে। এ ক্ষেত্রে নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে, কোথাও শুধু নারীদের জন্যই বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। দুস্থ নারী ভোটারদের কাছে টানতে নেওয়া হয়েছে এ কৌশল। কারণ পুরুষ ভোটাররা অনেকেই আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সভা-সমাবেশে অংশ নিলেও নারীরা বেশির ভাগই দলের বা সরকারের যোগাযোগের বাইরে থাকেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঈদের আগের দিন নিজের এলাকায় যাবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। ২৩ আগস্ট তিনি ঢাকায় ফিরবেন। এলাকায় অবস্থানকালে তিনি সাধারণ মানুষের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

ঈদ উপলক্ষে গত রবিবারই নিজ নির্বাচনী এলাকা ভোলা সদরে গেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি আগামী ২৫ আগস্ট ঢাকায় ফিরবেন। এলাকায় অবস্থানকালে বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন। এ ছাড়া নির্বাচনী এলাকার দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও জনসংযোগ করবেন তিনি।

গত শনিবার নিজ নির্বাচনী এলাকা সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে গেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। ঈদের পরদিন তিনি ঢাকায় ফিরবেন। নির্বাচনী এলাকায় অবস্থানকালে বেশ কয়েকটি সভা-সমাবেশে যোগ দেবেন নাসিম।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহ ঈদ উপলক্ষে নিজ নির্বাচনী এলাকা ফরিদপুর-৪ আসনের বিভিন্ন উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও বিশিষ্টজনদের জন্য মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করতে যাচ্ছেন। ঈদের দিন দুপুরে তাঁর নিজ বাড়িতে ১০ হাজার, সদরপুর উপজেলায় ১০ হাজার এবং চর ভদ্রাসনে পাঁচ হাজার মানুষের ভোজের ব্যবস্থা করা হবে।

গত ১৫ আগস্ট থেকে রবিবার পর্যন্ত পাঁচ দিন নিজ নির্বাচনী এলাকা টাঙ্গাইলের মধুপুর ও ধনবাড়ী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে নানা কর্মকাণ্ডে অংশ নেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক। তিনি আজ ঢাকা থেকে আবার নিজ এলাকায় যাবেন। সেখানে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। অন্তত তিন দিন সেখানে অবস্থান করে ঢাকায় ফিরবেন তিনি।

ড. আবদুর রাজ্জাক কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ঈদে দলীয় নেতাকর্মীদের সময় দেব। বাস্তবতা হলো আমরা অনেক নেতাকর্মীর আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে পারিনি। অনেকের মধ্যে মান-অভিমান আছে। সীমিত সম্পদের দেশে আমাদের অনেক নেতাকর্মীরই ভালো জীবিকা নিশ্চিত হয়নি। আমরা চেষ্টা করব ঈদের উৎসবে তাদের কাছে টেনে মান-অভিমান দূর করার। আগামী দিনে তাদের মূল্যায়নের জন্য আশ্বস্ত করব।’ তিনি বলেন, ‘ঈদ সামনে রেখে গত পাঁচ দিনে আমার নির্বাচনী এলাকায় কয়েক হাজার ভিজিএফ কার্ড বিতরণ করেছি। আগে ভিজিএফ কার্ডে ১০ কেজি করে চাল দেওয়া হলেও নির্বাচন সামনে রেখে এবার তা ২০ কেজি করা হয়েছে। ভিজিএফ কার্ডের মাধ্যমে সারা দেশেই এবার ২০ কেজি করে চাল বিতরণ হচ্ছে। দলীয় বিভিন্ন সভা-সমাবেশে নারীদের উপস্থিতি কম থাকে। সে জন্য আমার এলাকায় ভিজিএফ কার্ডের মাধ্যমে চাল সহযোগিতা শুধু নারীদের দিয়েছি।’

১৪ দলের শরিক দল ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ঈদ উদ্‌যাপন করবেন ঢাকায়। মেনন কালের কণ্ঠকে জানান, ঈদের দিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মিন্টো রোডে তাঁর সরকারি বাসায় রাজনীতিকদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন তিনি। দুপুরের পর তিনি স্বজনদের সময় দেবেন।

১৪ দলের শরিক দল জাসদের সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ঈদ উদ্‌যাপন করতে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার গোলাপনগরে নিজ বাড়িতে যাবেন আজ। ঈদের দিন নিজ বাড়িতে ১৪ দলীয় জোটের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন তিনি।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জয়পুরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য আবু সাঈদ আল মাহমদু স্বপন আজ নির্বাচনী এলাকায় যাবেন। সেখানে তিনি দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঈদ উদ্‌যাপন করবেন। নির্বাচনী এলাকায় অবস্থানকালে কালাই, ক্ষেতলাল ও আক্কেলপুরের বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন স্বপন। তিনি জনসাধারণের সমস্যা ও প্রত্যাশার কথা শুনবেন এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক সমাধান দেবেন।

জাসদ সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শিরিন আখতার ঈদের দিন ফেনীর ছাগলনাইয়ায় নিজ বাসভবনে বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল ঈদের দিন সকালে নেত্রকোনা-৩ আসনের বিভিন্ন এলাকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। দলের সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী আজ থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ মানুষ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। বেশ কয়েকটি ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানেও অংশ নেবেন তিনি।

আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, ‘সামনে জাতীয় নির্বাচন। এরই মধ্যে নির্বাচনের আমেজ চলে এসেছে। যাঁরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চান তাঁরা মাঠে সক্রিয় হয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই এবার ঈদে জনপ্রতিনিধিরা একটু বিশেষ তৎপর থাকবেন। কারণ মুখে যাই বলুক বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবেই। ফলে আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে জয়লাভের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমি নির্বাচনের আগে অন্তত তিনবার প্রত্যেক পাড়া, মহল্লা, ওয়ার্ডে সাধারণ মানুষের কাছে যেতে চাই। ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আমি প্রতিটি পাড়ায় যাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। সে জন্য ঈদের কয়েকটি দিন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।’



মন্তব্য