kalerkantho


কোস্তার সৌভাগ্যে ইরানের দুর্ভাগ্য

রাশিয়াকে নিয়ে শেষ ষোলোতে উরুগুয়ে

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



কোস্তার সৌভাগ্যে ইরানের দুর্ভাগ্য

ক্ষণিকের জন্য ভাগ্য সহায় হলো এক দলের, আরেক দল পুড়ল দুর্ভাগ্যে। আর সেই মুহূর্তই গড়ে দিল ম্যাচের ভাগ্যও। ইরানের দুর্ভাগ্যেই জিতল স্পেনও।

তাদের ফরোয়ার্ড দিয়েগো কোস্তা এই বিশ্বকাপে করলেন নিজের তৃতীয় গোল, কিন্তু সেটি করার জন্য গোলে তাঁর শটই নিতে হলো না কোনো! অবিশ্বাস্য হলেও এটিই সত্য।

আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার বাড়ানো বল ইরানের বক্সে ধরে কোস্তা চকিতে ঘুরলেন গোলে শট নেবেন বলে। কিন্তু ঘুরতে না ঘুরতেই দলকে বিপদমুক্ত করার জন্য বলে পা চালালেন ইরানি ডিফেন্ডারও। সেই বলই আবার কোস্তার পায়ে প্রতিহত হয়ে জড়িয়ে গেল ইরানের জালে। পিছিয়ে পড়া ইরান সমতায়ও ফিরেছিল, কিন্তু ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সহায়তা নিয়ে সেটি বাতিল হওয়ায় গোলে শট না নিয়েও গোল পাওয়া কোস্তায় ১-০ গোলে জিতে পর্তুগালের সঙ্গে বি গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার লড়াইয়ে ৪ পয়েন্ট ও গোল-পার্থক্যে সমান-সমান অবস্থানেই থাকল ২০১০ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

মরক্কোকে হারিয়ে শুরু করা ইরানও ৩ পয়েন্ট নিয়ে লড়াই থেকে ছিটকে যায়নি। তবে গ্রুপের শেষ ম্যাচে তারা প্রবল প্রতিপক্ষ পর্তুগালকে সামনে পাচ্ছে। আর এরই মধ্যে বিদায় নেওয়া মরক্কো শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে স্পেনের। সেই হিসাবে বড় দুই দলই সম্ভাবনায় এগিয়ে। বি গ্রুপে শেষ ষোলোতে কারা যাচ্ছে, সেটি অমীমাংসিত থাকলেও এ গ্রুপের অবস্থা তা নয়। সেখানে স্বাগতিক রাশিয়ার কাছে উদ্বোধনী ম্যাচে অসহায় আত্মসমর্পণ করা সৌদি আরব এবার পাল্টা আক্রমণে কাঁপাতে পারল প্রবল প্রতিপক্ষ উরুগুয়েকে। লড়লও সমানে-সমান, কিন্তু তাতে গোলমুখ খুলতে পারল না, যা ম্যাচের ২৩ মিনিটেই উরুগুয়ের হয়ে শততম ম্যাচ খেলতে নেমে খুলে ফেলেছিলেন লুই সুয়ারেস। শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনা তারকার ওই গোলই হয়ে গেল ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারক। একই সঙ্গে সুয়ারেসের গোল উরুগুয়ের পাশাপাশি শেষ ষোলোতে তুলে নিল আয়োজক রাশিয়াকেও।

১-০ গোলের এই জয়ে টানা দুই ম্যাচ জিতে ৬ পয়েন্ট দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ের। ১৯৫৪ সালের পর এই প্রথম তারা বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে জিতল। এই নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো নকআউট পর্ব নিশ্চিত করা সুয়ারেসদের আগেই এ গ্রুপে টানা দুই ম্যাচ জিতে ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে দ্বিতীয় রাউন্ড প্রায় নিশ্চিত করে রেখেছিল রাশিয়াও। উরুগুয়ের জয়ে কাল ‘প্রায়’ শব্দটিও উঠে গেল। কারণ গ্রুপের অন্য দুই দল মিসর ও সৌদি আরব হেরেছে নিজেদের দুই ম্যাচেই। নিজেদের শেষ ম্যাচে একে অন্যের মুখোমুখি হতে যাওয়া এই দুই দলের একটি জিতলেও সর্বোচ্চ ৩ পয়েন্ট পাওয়া সম্ভব। তাই এখনই ৬ পয়েন্ট করে পাওয়া রাশিয়া ও উরুগুয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়া নিশ্চিত হয়ে গেছে।

দুই দলেরই সেই ভাগ্য কাল নিশ্চিত করল সুয়ারেসের গোল। কার্লোস সানচেসের নেওয়া কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে হেড করতে লাফিয়ে উঠেছিলেন দুই ডিফেন্ডার দিয়েগো গোদিন ও হোসে গিমেনেস। তাঁরা মাথা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হলেও ফাঁকায় দাঁড়ানো সুয়ারেস বাঁ পায়ের টোকায় বল জালেই শুধু জড়াননি, দলকে নিয়ে গেছেন নকআউট পর্বেও। মিসরের বিপক্ষে আগের ম্যাচে বেশ কয়েকটি মিস করলেও দেশের জার্সিতে শততম ম্যাচ খেলা উদ্যাপন করলেন গোল করেই! 



মন্তব্য