kalerkantho


সংবাদ সম্মেলনে খন্দকার মাহবুব

মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে প্যারলে মুক্তি দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০



মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে প্যারলে মুক্তি দিন

ফাইল ছবি

মানবিক কারণে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ঈদের আগে প্যারোলে মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ করেছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেছেন, ‘আইনী প্রক্রিয়ায় তাঁকে বের করতে হলে দীর্ঘ সময় লাগবে, রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে মানবিক বিবেচনায় তাঁকে প্যারলে মুক্তি দিন।’

রাজধানীর মালিবাগে নিজ বাসভবনে গতকাল বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন ডেকে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, দুটি মামলায় হাইকোর্ট খালেদাকে জামিন দিয়েছেন। এ আদেশের বিরুদ্ধে সরকার আপিল করেছে, আগামী ২৪ জুন এর শুনানি। নিম্ন আদালতেও বেশ কিছু মামলা রয়েছে। এসব কারণে আইনি প্রক্রিয়ায় তাঁকে বের করতে হলে দীর্ঘ সময় প্রয়োজন হতে পারে। এ ছাড়া তিনি একজন বয়স্ক মানুষ এবং কারাগারে স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে তাঁর রোগ আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। তাঁকে দ্রুত সুচিকিৎসা দেওয়া প্রয়োজন।

খালেদা জিয়া চার মাসের বেশি কারারুদ্ধ রয়েছেন উল্লেখ করে খন্দকার মাহবুব বলেন, তাঁকে পরিত্যক্ত জেলখানায় বা একটি পরিত্যক্ত ভবনে রাখা হয়েছে। যেকোনো সুস্থ লোকও সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়বে। সে কারণে প্যারোলে মুক্তি দিয়ে তাঁর সুচিকিৎসার সুযোগ দেওয়া হোক। খন্দকার মাহবুব বলেন, তিনি বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত একজন বয়স্ক নারী এবং তাঁর শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হয়েছে। তাঁর সুচিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন। খালেদা জিয়াকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, যেহেতু ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি (খালেদা জিয়া) চিকিৎসা করাতে ইচ্ছুক, তাঁর ইচ্ছার গুরুত্ব দেওয়া উচিত। তাঁর চিকিৎসার দায়িত্ব যেন সরকার না নেয়।

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও প্যারোলে মুক্তি পেয়েছিলেন উল্লেখ করে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, যেহেতু এর আগে প্যারোলে মুক্তি দেওয়ার নজির রয়েছে, সে ক্ষেত্রে সরকারের কোনো দায়-দায়িত্ব থাকবে না। এক প্রশ্নের জবাবে খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘সরকার যদি বলে তাহলে দলের নেতারা প্যারোলে মুক্তির জন্য আবেদন করতে পারেন। তবে এখানে সরকারেরও দায়িত্ব রয়েছে। আমি আইনজীবী হিসেবে বলছি, প্যারোলে মুক্তি দিলে খালেদা জিয়া তাঁর ইচ্ছানুযায়ী চিকিৎসা নিতে পারবেন।’



মন্তব্য