kalerkantho


জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা

অ্যাটর্নি জেনারেল শুনানি করায় রায় এক দিন পেছাল

খালেদার জামিন নিয়ে রায় আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ মে, ২০১৮ ০০:০০



অ্যাটর্নি জেনারেল শুনানি করায় রায় এক দিন পেছাল

ফাইল ছবি

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল থাকবে, নাকি বাতিল হবে সে বিষয়ে গতকাল মঙ্গলবার রায়ের দিন থাকলেও তা হয়নি। রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম নতুন করে শুনানি করায় রায় এক দিন পিছিয়েছে। আদালত আজ বুধবার রায়ের দিন নির্ধারণ করেছেন।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করবেন। বিষয়টি আপিল বিভাগের আজকের কার্যতালিকার ১ নম্বরে রয়েছে।

খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বাতিল চেয়ে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রায়ের নতুন এ তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

গত ৯ মে শুনানি শেষে আপিল বিভাগ রায়ের দিন নির্ধারণ করেছিলেন ১৫ মে। কিন্তু গতকাল সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে রায় ঘোষণার

আগমুহূর্তে অ্যাটর্নি জেনারেল আদালতে নতুন করে শুনানির আবেদন জানান। তিনি আদালতে বলেন, ‘আমি পুনরায় শুনানি করতে চাই। এ জন্য আগামীকাল (বুধবার) দিন ধার্য রাখুন।’

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আজ তো (মঙ্গলবার) রায়ের জন্য রয়েছে।’ তখন অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘ওই দিন (৯ মে) হৈচৈয়ের কারণে সব বলতে পারিনি।’ প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘যদি কিছু বলার থাকে এখনই বলুন।’ অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘এ রকম আরো অনেক নজির রয়েছে রায়ের আগে শুনানির। তাই আগামীকাল রাখুন। তা ছাড়া আজ আমি কোনো বইপত্র নিয়ে আসিনি। এ জন্য সময় দরকার। এক দিন পেছানো হলে কিছুই হবে না।’

ওই সময় প্রধান বিচারপতি বিষয়টি নিয়ে অন্য বিচারপতিদের সঙ্গে পরামর্শ করেন। শেষে তিনি বলেন, ‘আমার এক সহকর্মী অসুস্থ। তিনি আগামীকাল আসতে পারবেন না। তাই যা বলার আজই বলুন।’ একপর্যায়ে দুপুর ১২টায় শুনানির সময় নির্ধারণ করা হয়। নির্ধারিত সময়ে শুরু করে দুপুর ১টা পর্যন্ত শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল। এরপর পাঁচ মিনিটের মতো শুনানি করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে আরো ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা ও মমতাজ উদ্দিন ফকির, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ প্রমুখ। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার আমিনুল হক, আবদুর রেজাক খান, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, মীর মো. নাছির উদ্দিন, নিতাই রায় চৌধুরী, বদরুদ্দোজা বাদল প্রমুখ।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ গত ৮ ফেব্রুয়ারি এক রায়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন।

 



মন্তব্য