kalerkantho


পানির নিচে ‘মায়া’র চিহ্ন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



পানির নিচে ‘মায়া’র চিহ্ন

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সুড়ঙ্গপথের সন্ধান পাওয়া গেছে মেক্সিকোতে। পানির নিচের ওই সুড়ঙ্গপথে ১২ হাজার বছরের পুরনো মায়া সভ্যতার জীবাশ্ম ও বরফ যুগের প্রাণীর হাড়গোড় মিলেছে। এমনকি সেখানে পাওয়া গেছে মায়া সভ্যতার এক আলোচিত ধর্মীয় সৌধের ভগ্নাবশেষও।

গত জানুয়ারি মাসে ডুবুরিদের একটি দল মেক্সিকোর ইউকাতান উপদ্বীপে জঙ্গলের মধ্যে চুনাপাথরে জলের ধারায় তৈরি হওয়া গহ্বর বেয়ে গভীর জলের নিচে ওই বিশাল সুড়ঙ্গপথের সন্ধান পান, যাকে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় জলমগ্ন সুড়ঙ্গ বলে ধারণা করা হচ্ছে। গবেষকরা বলছেন, এই আবিষ্কারটি প্রাচীন মায়া সভ্যতা গবষেণায় নতুন দুয়ার খুলছে।

ইউকাতান উপদ্বীপটি প্রাচীন মায়া সভ্যতার মানুষের ধ্বংসাবশেষে পরিপূর্ণ। এর শহরগুলোতে বিস্তৃত গর্তগুলো ভূগর্ভস্থ পানির সঙ্গে সংযুক্ত। এগুলোকে সেনোট বলে। গবেষকরা বলছেন, সাক আকতুন নামের ৩৪৭ কিলোমিটার গুহায় ২৪৮টি এমন সেনোট আবিষ্কার হয়েছে। সাক আকতুন অবস্থিত তুলুমের একটি বিচ রিসোর্টের কাছে। সেখানে আবিষ্কৃত ২০০টি পুরাকীর্তির মধ্যে ১৪০টি মায়া সভ্যতার।

মেক্সিকোর সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, জীবাশ্ম ছাড়াও সেখানে প্লাইস্টোসিন যুগের বৃহৎ প্রাণী স্লথ, প্রাচীন হাতি ও বিলুপ্ত ভালুকের হাড় পাওয়া গেছে। সূত্র : দ্য টেলিগ্রাফ।

 



মন্তব্য