kalerkantho


এবার জাতীয়করণ দাবি বাদ পড়া বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



এবার জাতীয়করণ দাবি বাদ পড়া বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের

জাতীয়করণের দাবিতে বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি গতকাল থেকে প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতীকী অনশন করছে। ছবি : কালের কণ্ঠ

জাতীয়করণের দাবিতে এবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান নিয়েছেন বাদ পড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। গতকাল রবিবার বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ব্যানারে তাঁরা অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন। আজ সোমবার একই স্থানে প্রতীকী অনশন পালন করবেন তাঁরা। আর আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে তাঁরা অনশন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছেন।

শিক্ষকরা জানান, ২০১৩ সালে ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় একযোগে জাতীয়করণে বেশ কিছু বিদ্যালয় বাদ পড়ে যায়। জেলা ও উপজেলা যাচাই-বাছাই কমিটির সুপারিশ করা চার হাজার ১৫৯টি স্কুলের তালিকা করা হয়। ওই সব স্কুলে প্রায় ১৬ হাজার শিক্ষক বিনা বেতনে চাকরি করছেন।

সমিতির সভাপতি মো. মামুনুর রশিদ বলেন, ‘আমাদের বিদ্যালয়গুলো কেন্দ্রীয় টাস্কফোর্স জাতীয়করণ কমিটি কর্তৃক যাচাই-বাছাই করা হলেও এখনো জাতীয়করণ করা হয়নি। ফলে আমাদের শিক্ষকরা দীর্ঘদিন বিনা বেতনে চাকরি করে যাচ্ছেন। আমরা অনাহারে-অর্ধাহারে জীবন যাপন করছি। এর আগেও আমরা নানা ধরনের কর্মসূচি পালন করেছি। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। তাই এবার দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথ ছাড়ব না।’

এদিকে শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে সপ্তম দিনের মতো অনশন কর্মসূচি পালন করেছে বেসরকারি শিক্ষা জাতীয়করণ লিয়াজোঁ ফোরাম। কিন্তু এখনো সরকারের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট কোনো আশ্বাস তারা পায়নি। এই আন্দোলনে অংশ নিতে এসে এরই মধ্যে মোট ৯৮ জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। গতকালই ১৩ জন অসুস্থ হন বলে শিক্ষকরা জানান। এর মধ্যে সুনামগঞ্জের সালমা আক্তার ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের মামুনুর রশিদ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় গতকাল তাঁদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


মন্তব্য