kalerkantho


কুষ্টিয়া ও সিলেটে ‘বন্দুকযুদ্ধ’ দুই ডাকাত নিহত

সিলেট অফিস ও নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

২৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



কুষ্টিয়া ও সিলেটে ‘বন্দুকযুদ্ধ’ দুই ডাকাত নিহত

প্রতীকী ছবি

সিলেট ও কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ডাকাত নিহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভোররাত ৪টার দিকে কুষ্টিয়া শহরতলির কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কে সিটি কলেজের সামনে বন্দুকযুদ্ধে এক ডাকাত নিহত হয়। তবে গতকাল বিকেল পর্যন্ত নিহত ডাকাতের পরিচয় জানা যায়নি।

এদিকে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে হবিবুর রহমান হবি (৪৫) নামের ডাকাতি মামলার এক ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন অন্তত ছয়জন। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার সাতবাঁক ইউনিয়নের চরিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

কুষ্টিয়া ডিবি পুলিশের ওসি সাব্বিরুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাঁরা খবর পান, কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কে গাছের সঙ্গে তার বেঁধে একদল ডাকাত ডাকাতির চেষ্টা করছে। খবর পেয়ে ডিবি পুলিশ ও কুষ্টিয়া সদর মডেল থানা পুলিশের একটি যৌথ টিম সেখানে অবস্থান নেয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতদল পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও পাল্টা জবাব দিলে দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কিছুুক্ষণ বন্দুকযুদ্ধ চলে। একপর্যায়ে ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় অজ্ঞাতপরিচয় এক ডাকাতকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তিনটি পাইপগান, একটি রামদা, একটি ছুরি, একটি চায়নিজ কুড়াল, তিন রাউন্ড গুলিসহ বেশ কিছুু মোটা দড়ি উদ্ধার করেছে।

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) মুহম্মদ শামসুল আলম সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘রাত সাড়ে ৯টার দিকে কানাইঘাট থানার পুলিশ ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হিসেবে হবিবুর রহমানকে ধরতে যায়। এ সময় হবিসহ তাঁর পরিবারের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। গোলাগুলির একপর্যায়ে ডাকাত হবি নিহত হন।’ এ ঘটনায় কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। তিনি জানান, নিহত হবির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।



মন্তব্য