kalerkantho


ছাত্রী কবিতা হত্যা

দুই বছরেও হয়নি রহস্য উদ্‌ঘাটন

বরিশাল অফিস   

৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



দুই বছর আগে বরিশালের গৌরনদীর স্কুলছাত্রী কবিতা আক্তারকে হত্যা করা হয়। কিন্তু এই দীর্ঘদিনেও হত্যারহস্য উদ্ঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। অন্যদিকে হত্যা মামলার প্রধান আসামি আজাদ হোসেন কালু চকিদার বিদেশে পালিয়ে গেলেও অন্যরা উল্টো বাদীকে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ। এমনকি বাদীর ওপর হামলাও চালানো হয়েছে। অব্যাহত হুমকির মুখে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে পরিবারটি।

মামলার এজাহার ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, গৌরনদী পৌরসভার সুন্দরদী মহল্লার দিনমজুর আয়নাল হক বেপারীর মেয়ে ও অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী কবিতার সঙ্গে একই উপজেলার ধানডোবা গ্রামের লাল মিয়া চকিদারের ছেলে আজাদের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ২০১৫ সালের নভেম্বর মাসে কালু ও কবিতা পালিয়ে যায়। পরে উভয় পক্ষের আত্মীয়দের মধ্যস্থতায় কবিতাকে ফেরত দেওয়া হয়।

মামলার বাদী, কবিতার বাবা আয়নাল জানান, ২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারি সকালে তাঁর মেয়ে রহস্যজনকভাবে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের দুই দিন পর তাদের বাড়ির অদূরে কবিতার লাশ মিলে। এ ঘটনায় তিনি আজাদ, তার বাবা লাল মিয়াসহ ৯ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় হত্যা মামলা করেন। এর পর পরই প্রধান আসামি আজাদ বিদেশে পালিয়ে যায়। ২০১৬ সালের ৬ এপ্রিল মামলাটি বরিশাল গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে গ্রেপ্তারকৃত আসামি খায়রুল সরদার, খোকন সরদার, কালু সরদারসহ অন্যরা উচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পায়।

 



মন্তব্য