kalerkantho

জোকস: অন্তত ভোটের দিন বিকাল থেকেই...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৯ ২০:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জোকস: অন্তত ভোটের দিন বিকাল থেকেই...

আর দুইদিন পরেই নির্বাচন। এসময় জাঁদরেল এক নেতা হেলিকপ্টারে করে গেলেন নিজ নির্বাচনী এলাকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে। অজপাড়াগাঁয়ে হেলিকপ্টার থেকে নামার পর যথারীতি তাকে ঘেরাও করে দাঁড়ালো এলাকাবাসী। ব্যাপক ভীড় লেগে গেল। নেতা এমনটাই চেয়েছিলেন। তিনি আত্মবিশ্বাসী ভঙ্গিতে বললেন

- তোমাদের কী কী সমস্যা আছে বল আমাকে? এখনি সব সমাধান করে দেব।
- আমাদের প্রধান সমস্যা দুটি, হুজুর।
- আমি তো সেগুলো সমাধান করার জন্যেই ঢাকা উড়ে এসেছি। প্রথম সমস্যা বল! 
- গ্রামে একজনও ডাক্তার নেই। হাতে-পায়ে ধরেও সদর থেকে কাউকে আনা যায় না, হুজুর।
- বল কী! এক্ষুণি দেখছি... 

একথা বলেই নেতা পকেট থেকে ফোন বের করে নম্বর টিপলেন। এরপর কানে লাগিয়ে কারো সাথে কথা বলা শুরু করলেন। অপরপক্ষের কথা শোনা না গেলেও নেতার কিছু কথা পরিষ্কার শোনা গেল। যেমন তিনি একবার রেগে গিয়ে বলেছেন- ‘না না, আমি অন্য কোনো কথা শুনতে চাই না। অন্তত ভোটের দিন বিকাল থেকেই এই গ্রামে ডাক্তার চাই-ই চাই!’

ফোনে কথা শেষ করে নেতা মুখ ভরা হাসি নিয়ে ফের জনতার দিকে মনোযোগ দিলেন 
- ডাক্তার সমস্যার সমাধান তো হয়ে গেল। এবার দ্বিতীয় সমস্যা বল।
- আমাদের গ্রামে কোনো মোবাইল নেটওয়ার্ক নাই, হুজুর... তিন তলা উঁচু গাছে উঠেও ফ্রিকোয়েন্সি মিলে না...

                                                (২)
বিয়ের আসরে পাগড়ি-শেরোয়ানি পরে মুখে রুমাল চেপে বসে আছে মন্টু। তবে খুবই চিন্তিত। ছেলেকে অমন চিন্তিত দেখে মন্টুর বাপ কাছে এসে কানের কাছে মুখ এনে জিজ্ঞেস করলেন
- কী হয়েছে বাপজান? অত চিন্তিত দেখাচ্ছে কেন!
- বাবা, কনে আমার বামে বসবে না ডানে?
- এখন সামনে-পিছনে-ডানে-বায়ে যে কোনো একদিকে বসালেই হবে। তবে বিয়েটা হওয়ার পরই সে তোর মাথায় চড়ে বসবে- এইটা গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি...

মন্তব্য