kalerkantho


জোকস: ভারত-পাকিস্তানি রগড়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ অক্টোবর, ২০১৮ ১৭:২৮



জোকস: ভারত-পাকিস্তানি রগড়

উত্তর ভারতের অনিল আর দিল্লিবাসী রেখার প্রেমে এখন ব্রেকআপ চলছে। রেখাকে অনেকদিন না দেখে বিরহকাতর অনিল ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছে: আমার কোনো মমতাজ নেই, তাই তাজমহল গড়া হলো না!

জবাবে দিল্লি থেকে প্রেমিকা রেখা কমেন্ট করেছে: আগে বাথরুম তো তৈরি কর একটা! চাপ লাগলেই পুরো বাড়ির সবাই লোটা নিয়ে ক্ষেতে দৌড়াদৌড়ি আর কতদিন করবি?  

(২)
সংঘাত-সহিংসতায় জর্জরিত পাকিস্তানে তখন মার্শাল ল চলছে। সান্ধ্য আইনে সন্ধ্যা ৬টার পরে রাস্তায় কাউকে দেখা গেলেই গুলির নির্দেশ ছিল। এক চৌরাস্তার মোড়ে সেনাদল তাদের অবস্থান নিচ্ছিল। তখন পৌনে ৬টা বাজে। লোকজন দৌড়ে যার যার গন্তব্যে যাচ্ছে। হঠাৎ এক সৈনিক রাইফেল তাক করে দৌড়াতে থাকা এক লোককে গুলি করে মেরে ফেললো। সঙ্গী সিনিয়র চিৎকার দিয়ে উঠলো-

গাধার বাচ্চা! এটা কী করলি? এখনো তো পনের মিনিট সময় বাকি আছে ছয়টা বাজতে!

আমি লোকটাকে চিনি। ওর বাড়ি এখান থেকে কমসে কম এক ঘণ্টার রাস্তা। ১৫ মিনিটে কিছুতেই ওখানে পৌঁছাতে পারতো না সে, ওস্তাদ!

একথা বলে সদ্য গুলি করা রাইফেলটা পরিষ্কারে মনোযোগ দিল সৈনিক।

(৩)
ফল খাওয়ার সময় মাঝপথে তাতে পোকা পেলে ক্ষতি নই। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে যখন পোকাটার অর্ধেক পাওয়া যায়! মন্টুর বাপের পর্যবেক্ষণ

(৪)
স্ত্রী অসুস্থ বললে প্রথমেই তাকে হাসপাতাল-ডাক্তারের কাছে নেওয়ার আগে অন্য দুটি চেষ্টাও করে দেখতে পারেন। প্রথমত তাকে শাড়ির দোকানে নিয়ে যান। সেখানে গিয়েও সুস্থ না হলে স্বর্ণের দোকানে নিয়ে যান। এরপরও যদি সুস্থ না হয়- তবে বুঝবেন, তিনি ঠিকই অসুস্থ! মন্টুর বাপের দৃষ্টিভঙ্গি

(৫)

অগোছালো স্বভাবের জন্য পরিচিত মিলির স্বামী আনিস বাসায় ফিরেই-

আনিস: কী ব্যাপার! আজ ঘর-দোর সব ফিটফাট লাগছে! ফেসবুক-হোয়াটস্আপ কি বন্ধ করে দিয়েছে নাকি?

মিলি: না তো! 

আনিস: তাহলে?

জবাব দিল তাদের আট বছরের কন্যা শান্তা-
 
মোবাইলের চার্জারটা পাচ্ছিল না আম্মু। সেটা খুঁজতে গিয়েই পুরো ঘর ওলট-পালট। শেষে বাধ্য হয়েই ঘর গুছিয়েছে... আমাকে সঙ্গে নিয়ে...



মন্তব্য