kalerkantho


জোকস : আমার ব্রান্ড নিউ গাড়িটা... আহ হাহা হা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:৩৩



জোকস : আমার ব্রান্ড নিউ গাড়িটা... আহ হাহা হা

শহরের সবচেয়ে ধনী তবে কৃপণ ব্যক্তিটি তার বিএমডব্লিউ গাড়ি নিয়ে এক্সিডেন্ট করেছে। পুলিশ ও দমকল কর্মীরা উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে তুলছে তাকে...

কৃপণ : আমার ব্রান্ড নিউ গাড়িটা... আহ হাহা হা... আড়াই কোটি টাকা... আহ... উঁ উঁ

পুলিশ অফিসার : আজব ধাতুতে গড়া লোক তো আপনি! মরতে মরতে বেঁচে গেছেন, আপনার বাম হাতটা কাটা পড়েছে আর আপনি আছেন গাড়ি নিয়ে!

এবার শরীরের বাম পাশে তাকিয়ে হায় হায় করে উঠলো কৃপণ : আমার হীরা বসানো সোনার রোলেক্স ঘড়ি... ওহ খোদা... আরো পঞ্চাশ লাখ...আয় হায় হায় রে...

                                                (২) 

আমেরিকাকে অনেকেই বলে ফ্রি কান্ট্রি কিন্তু দেশটিতে ফ্রি-তে কিছুই পাওয়া যায় না- মন্টুর বাপের উপলব্ধি

                                                (৩) 
বস : বাঙালি পারিবারের সদস্যদের মাঝে একজনের জন্য অপরজনের অন্তরের টান দুনিয়া জুড়ে এক দুর্লভ জিনিস, তাই না?

মন্টুর বাপ : স্যার, একদম খাঁটি কথা বলছেন!

বস : প্রায়ই দেখি কিছু না বুঝেই খালি কথায় তাল দিয়ে যাও শুধু! অমন তেলবাজি আমার কিন্তু পছন্দ না। 

মন্টুর বাপ : জ্বী স্যার!

বস : জ্বী জ্বী না করে উদাহরণ দাও বাঙালির পারিবারিক সম্প্রীতির।

মন্টুর বাপ : টাটকা উদাহরণ আছে, স্যার। আপনি টাইফয়েড জ্বরে পরার পর আমরা আপনাকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলাম আপেল-কমলা নিয়ে...

বস : হ্যাঁ, তা গিয়েছিলে বই কি।

মন্টুর বাপ : সেই ফলগুলো কি আপনি নিজে খেয়েছিলেন, স্যার?

বস : মানে?! পরিবারের সবাইকে নিয়েই তো... 

মন্টুর : একদম ঠিক, স্যার। মানে, রোগী এক কিন্তু তার ফল বা সুফল ভোগ করে পুরো পরিবার। এরচেয়ে বড় পারিবারিক সম্প্রীতির উদাহরণ এই বাংলাদেশ ছাড়া আর কই পাইবেন, স্যার...

বস : বুঝেছি! সকাল সকাল তোমাকে ঘাঁটানো ঠিক হয়নি। এখন যাও, নিজের কাজ কর গিয়ে...

                                                (৪)
সদ্য বিয়ে করা মজনুর মন খারাপ। ঘরে শান্তি নাই! আড্ডার ছলে বুদ্ধি নিতে এসেছে বন্ধু কাজলের কাছে

মজনু : দুজন বান্ধবী একইদিন তোকে প্রপোজ করলে কাকে বিয়ে করবে?

কাজল : প্রথমেই দুজনের মধ্যে ঝগড়া-মারামারি লাগিয়ে দেব।

মজনু : আপ্‌স! আমিও... এরপর যে জিতবে তাকে বিয়ে করবি!

কাজল : না, হারনেওয়ালীকে?

মজনু : কেন?

কাজল : তাইলে বিয়ের পর ঝগড়া-মারপিটে সব সময়ে জেতার চান্স থাকবে...

মজনু : হায় হায়! কি ভুলটাই না করেছি আমি! 

কাজল : কী করেছিস?

জিতনেওয়ালীকে বিয়ে করেছিলামরে...

                                                (৫) 

আমাকে চিনেছেন?

না তো! কে আপনি! 

আমি সেই যাকে গতকালও চিনতে পারেননি আপনি...

 



মন্তব্য