kalerkantho


একজন অসাধু পরীক্ষার্থীর সাক্ষাৎকার

রাজিব দেবনাথ   

৬ মার্চ, ২০১৮ ১৮:১০



একজন অসাধু পরীক্ষার্থীর সাক্ষাৎকার

প্রশ্ন : কেমন আছেন আপনি?

পরীক্ষার্থী : জি, ভাইয়া; আপনাদের দোয়ায় অনেক ভালো।

প্রশ্ন : তা পরীক্ষার পড়া রেখে সাক্ষাৎকার দিতে এলেন, পড়ালেখার ক্ষতি হচ্ছে না?

পরীক্ষার্থী : আরে না! এতক্ষণ তো বসে বসে ফেসবুক চালাচ্ছিলাম।

প্রশ্ন : তা আপনার প্রিপারেশন কেমন?

পরীক্ষার্থী : অনেক ভালো, ভাইয়া।

প্রশ্ন : মানে কোনো সাবজেক্টে সমস্যা নেই?

পরীক্ষার্থী : আমি তো তা বলিনি। বলেছি, প্রশ্ন কিনতে হবে তো, তার প্রিপারেশন ভালো। সব টাকা-পয়সা জোগাড় হয়ে গেছে।

প্রশ্ন : ওহ্, আচ্ছা। তা আপনি কি শুধু প্রশ্ন কেনেন? বন্ধুবান্ধবের কাছে তা আবার বিক্রি করে টুপাইস ইনকাম করেন না?

পরীক্ষার্থী : আপনারা তো সবই জানেন, ভাইয়া। তাহলে কেন যে শুধু শুধু লজ্জা দেন!

প্রশ্ন : লজ্জা দেওয়ার জন্য দুঃখিত, আর লজ্জা আছে জেনে আনন্দিত হলাম।

পরীক্ষার্থী : তবে এখনো অল্প একটু প্রিপারেশন বাকি।

প্রশ্ন : সেটা কী?

পরীক্ষার্থী : আমার মোবাইল ফোনের স্ক্রিনটায় একটু প্রবলেম। এইটা সারাতে হবে; নইলে পরীক্ষার আগের রাতে কী বিপদ হবে ভেবে দেখেছেন!

প্রশ্ন : হুম, একেবারে মহাবিপদ! তা আপনার এসএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট কী ছিল?

পরীক্ষার্থী : ভাইয়া, আই অ্যাম জিপিএ ৫ বয়। আমার পিএসসি, জেএসসি, এসএসসি—সব কিছুতেই গোল্ডেন এ+ ছিল। আগেই প্রশ্ন পেয়েছিলাম কি না...হে হে হে...।

প্রশ্ন : বাহ্! আপনি দেখি রীতিমতো হ্যাটট্রিক করে বসে আছেন।

পরীক্ষার্থী : আবারও লজ্জা দিচ্ছেন, ভাইয়া।

প্রশ্ন : আচ্ছা, আপনাকে আর লজ্জা দেব না। ভালো থাকবেন।

পরীক্ষার্থী : আপনিও ভালো থাকবেন। ওহ্, লেখাটা পেপারে কবে আসবে, ভাইয়া?

প্রশ্ন : এই তো, সামনের মঙ্গলবার।

পরীক্ষার্থী : তার আগে একবার দেখার সুযোগ নেই?

প্রশ্ন : একদম না। সাক্ষাৎকার ফাঁস হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।



মন্তব্য