kalerkantho


সকল নাগরিককে ডিজিটাল সেবার আওতায় আনতে সরকার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ মে, ২০১৮ ২১:১০



সকল নাগরিককে ডিজিটাল সেবার আওতায় আনতে সরকার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, জ্ঞানভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বাংলাদেশের সকল নাগরিককে ডিজিটাল সেবার আওতায় আনতে বর্তমান সরকার আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
মন্ত্রী আজ উত্তর ইউরোপের দ্বীপরাষ্ট্র ইস্তোনিয়ায় অনুষ্ঠিত তাল্লিন ই-গভর্নেন্স কনফারেন্সে ‘কিভাবে ডিজিটাল নাগরিক কেন্দ্রিক ই-গভর্নেন্স পরিচালনা করতে হয়’ শীর্ষক অধিবেশনে যোগ দিয়ে এ কথা বলেন।
ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দুইদিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত এই সম্মেলন উদ্বোধন করেন এস্তোনীয় প্রেসিডেন্ট কেরতি কালজুলীদ। এস্তোনিয়ান প্রধানমন্ত্রী লুসিয়া অ্যালেন চস্তানেট, ক্যাতালোনিয়া সরকারের ডিজিটাল নীতিমালা ও পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ মন্ত্রী জর্ডি পুইগেনরো আই ফেররে প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রোগ্রাম ডাইরেক্টর অব স্মার্ট গভার্ণমেন্ট-এর পরিচালক লিনের ভিক।
কনফারেন্সে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে ব্যবহারকারীদের জন্য নির্ভরযোগ্য ইন্টারনেট সেবা প্রদানের ডিজিটাল রূপরেখা প্রণয়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এ প্রেক্ষিতে তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমাণে ভিশন সমূহের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, মানব সম্পদ উন্নয়ন ও ইন্টারনেট সংযোগকারী নাগরিক ২০২১ সালের মধ্যে ৯০ ভাগে উন্নীত করা, ই-গভর্নেন্সের আওতায় বর্তমানে প্রায় ২শ’টি ই-সেবা, ২০২১ সালের মধ্যে ৯০ ভাগে উন্নীত করা, আইটি শিল্প এবং ডিজিটাল উদ্যোক্তা সহায়তা রপ্তানির পরিমান ২০২১ সালের মধ্যে ৫ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা সরকারের লক্ষ্য।
পলক বলেন, বাংলাদেশের জেলা ও উপজেলা স্তরের ছোট ছোট শহরকে উচ্চ গতির অপটিক্যাল
ফাইবার নেটওয়ার্কের আওতায় আনা হয়েছে। ২০১৮ সালের শেষ নাগাদ সকল গ্রামাঞ্চলকে অপটিক্যাল ফাইবারের আওতায় আনতে বাংলাদেশ পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশীপের মাধ্যমে একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘ইস্তোনিয়ার ও বাংলাদেশ, উভয় দেশেরই রয়েছে জাতিকে ডিজিটাল করার দৃঢ় রাজনৈতিক অঙ্গীকার। আমাদের জনগণ খুব স্মার্ট এবং নতুন প্রযুক্তি গ্রহণের সক্ষমতা রয়েছে। পারষ্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে আমরা পরস্পরকে শক্তিশালী করতে পারব বলে আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।’

 



মন্তব্য