kalerkantho


যেসব প্রযুক্তি আর গেজেটের মরণ ঘটল এ বছর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৪:৩৯



যেসব প্রযুক্তি আর গেজেটের মরণ ঘটল এ বছর

বছরটা শেষ হচ্ছে আজ। এখন পুরনো বছরে কী কী গেল তা নিয়ে নতুন করে কিছু আলোচনা হবেই। এখানে প্রযুক্তি দুনিয়া নিয়েই কথা বলা হচ্ছে। কী এলো আর কী গেলো সেই হিসেবের খাতা খুলে বসবেন প্রযুক্তিপ্রেমীরা। এখানে বিশেষজ্ঞরা বেশ কয়েকটি প্রযুক্তি ও গেজেটের কথা তুলে এনেছেন। ২০১৭ সালে তাদের মৃত্যু ঘটেছে। নতুন বছরে আরো নতুন কিছু আসবে বলেই সবার বিশ্বাস। এখানে জেনে নেওয়া যাক এ বছরের মৃত প্রযুক্তির কথা। 

উইন্ডোজ ফোন 
মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ফোনের মৃত্যু ঘটেছে। তবে বাজারে আসার পর থেকে বেশ সাড়া ফেলে দিয়েছিল। এ বছর বেশ কয়েকটি টুইটের মাধ্যমে এই ফোনের অস্তিত্ব বিলীনের ঘোষণা দেয় নির্মাতা। তবে এখনও যারা ব্যবহার করছেন, তারা নিয়মিত নিরাপত্তাবিষয়ক সুবিধা পাবেন। 

মাইক্রোসফট কাইনেক্ট 
এই সফটওয়্যার জায়ান্ট কাইনেক্ট থেকে তাদের ইচ্ছা সরিয়ে নিয়েছে। মোশন সেন্সিং জিনিসটি বানানো হয়েছিল এক্সবক্ ৩৬০ এবং এক্সবক্স ওয়ান গেমিং কনসোলের জন্য। ২০১০ সালে এটা বানানো হয়। ২০১১ সালের মধ্যে এক্সবক্স ৩৬০ সবচেয়ে বেশি বিক্রিত পণ্য পরিণত হয়। এমনকি তখন তা গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে স্থান করে নেয়। এ যন্ত্রের মোশন সেন্সর হিসেবে আসে কাইনেক্ট। এখন তা মৃত। 

থ্রিডি টিভি 
থ্রিডি মুভির জনপ্রিয়তার কথা নতুন করে বলার প্রয়োজন পড়ে না। কিন্তু এ বছরই এলজি বা সনির মতো বড় বড় টেলিভিশন নির্মাতারা থ্রিডি সাপোর্টেড টিভি বাজারে আনে। কিন্তু ২০১৬ সালে স্যামসাংয়ের মতো নির্মাতা তা বাতিল করে। তবে এ বছরই থ্রিডি টেলিভিশন বিলীন হয়ে গেছে। 

অ্যাপল আইপড সাফল এবং আইপ্যাড ন্যানো 
এ বছর অ্যাপল তাদের এক সময়ের জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা দুটো পণ্যের উৎপাদন বাতলি করেছে। এ দুটো যন্ত্রে ইন্টারনেটের ব্যবস্থা নেই এবং গত দুই বছরে কোনো ধরনের আপডেট পাচ্ছে না। 

এআইএম 
এওএল এর ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং পাইয়োনিয়ারকে বাদ দেওয়া হয়েছে এ মাসের প্রথম দিকে। টানা ২০ বছর সফলতার সঙ্গে চলেছে বাজারে। এ বছরের ১৫ ডিসেম্বর এক ঘোষণার মাধ্যমে এআইএম প্রযুক্তি বাদ দেওয়া হয়েছে। 

গুগল ট্যাঙ্গো 
এ বছরের প্রথম দিকে মৃত্যুবরণ করেছে ট্যাঙ্গো। এটা ছিল গুগলের সবচয়ে উচ্চাকাঙ্ক্ষি পরিকল্পনার একটি। এর মাধ্যমে ডেভেলপারদের অগমেন্টেড-রিয়েলিটি ভিত্তিক অ্যাপ বানাতে উৎসাহিত করা হতো। 

গুগল ক্রোম অ্যাপ 
এ বছরের ডিসেম্বরে গুগল তার ক্রোম ওয়েব স্টোরের 'অ্যাপ' অংশটি বাদ দিয়েছে। উইন্ডোজ, ম্যাক এবং লিনাক্সের ক্ষেত্রে বিষয়টি ঘটেছে। 

জিটক 
এ বছর অফিসিয়ালি জিটক এবং জিচ্যাট-কে বাতিল করা হয়েছে। ২০০৫ সালে বানানো এই মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম এ বছর চিরনিদ্রায় চলে গেছে। তবে এর স্থান দখল করেছে গুগল হ্যাঙআউটস। 

মাইক্রোসফট গ্রুভ মিউজিক 
মাইক্রোসফটের বাতিলের তালিকায় তিন নম্বরে রয়েছে এটি। এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর অর্থাৎ আজ থেকে মৃত্যু ঘটবে এর। 

নিন্টেন্ডো এন্টারটেইনমেন্ট সিস্টেম 
এ বছর আরেকটি বড় গেজেটের বিদায় ঘটবে। এনইএস এর ক্লাসিক এডিশনের মরণ ঘটেছে। এক ঘোষণায় নিন্টেন্ডো অব আমেরিকার মুখপাত্র এ তথ্য দেন। 
সূত্র : গেজেটস 



মন্তব্য