kalerkantho


শরণার্থীদের সহায়তা করছে রোবট আইনজীবী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৭ ১৫:০৫



শরণার্থীদের সহায়তা করছে রোবট আইনজীবী

ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় সম্প্রতি আফ্রিকা ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশ থেকে প্রচুর পরিমাণে শরণার্থী গিয়ে হাজির হয়েছে। এ শরণার্থীদের তথ্য দিয়ে সহায়তা করছে একটি রোবট প্রযুক্তি।

এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিবিসি। বিশ্বের প্রথম রোবট আইনজীবী হিসেবে বলা হচ্ছে এ চ্যাটবটকে। এটি মূলত তৈরি করা হয়েছিল ট্রাফিক জরিমানার বিষয়ে আইনি সহায়তা দেওয়ার জন্য। তবে এখন সে কাজে নয়, বরং শরণার্থীদের সহায়তা করতেই এটি কাজ করছে। এর আগে নির্মাতা জসুয়া ব্রোউডার ডুনটপে নামে এ ব্যবস্থার উন্নয়ন করেন। এটি মূলত একটি কম্পিউটার প্রোগ্রাম। ফেসবুক মেসেঞ্জার থেকে তথ্য নিয়ে লেখা কিংবা ভয়েস কমান্ডের মাধ্যমে তার জবাব দেয় এটি। যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় ইমিগ্রেশনের ফর্ম ফিলাপ করা সহজ নয়। এছাড়া শরণার্থী হিসেবে মর্যাদা পাবেন কি না, এ বিষয়টিও অনেকের জানা থাকে না। এসব ক্ষেত্রে রোবটটিকে জিজ্ঞাসা করলে সহজেই এসব বিষয় জানা যাচ্ছে। এছাড়া আর্থিক সহায়তার বিষয়গুলোও এর মাধ্যমে জানা যাচ্ছে। বিভিন্ন দেশের আইনজীবীদের সহায়তা নিয়ে এ রোবটের প্রোগ্রাম তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা ব্রোউডার। তিনি বলেন, ‘এটি কাজ করে মূলত একসারি প্রশ্নের মাধ্যমে। মূলত বর্তমান আইনে শরণার্থীরা বসবাসের জন্য সহায়তা পাবেন কি না, এ ধরনের প্রশ্নেরই জবাব দেয় এটি। ’ যেমন এটি প্রশ্ন করে, ‘আপনি কি আপনার দেশে বসবাস করলে নির্যাতনের মুখোমুখি হবেন, এমন ভয় পাচ্ছেন?’ এ প্রশ্নের উত্তর হ্যাঁ হলে আপনাকে আরও কিছু প্রশ্ন করা হবে। আপনি যদি শরণার্থী হিসেবে বসবাসের সুযোগ পান তাহলে আরও বহু যোগাযোগের ঠিকানা জানাবে এটি। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের ফর্ম ফিলাপ করতেও সহায়তা করে এ রোবট। ২০১৬ সালের মার্চে এটি উদ্বোধন করা হয়। ডুনটপে নামে সাইট থেকে এর সহায়তা পাওয়া যায়। এখন পর্যন্ত লক্ষাধিক মানুষ এ থেকে আইনি সহায়তা পেয়েছেন। ফেসবুকের সঙ্গে এ ব্যবস্থাটি জুড়ে দেওয়ার কারণ কী? এ প্রশ্নে নির্মাতা জানান, শরণার্থীরা এখন অনেকেই খাবার, পানি ও আশ্রয় পাচ্ছেন না। কিন্তু তাদের প্রায় ৩৯ শতাংশের হাতেই মোবাইল ফোন রয়েছে। এ কারণে তাদের সহায়তার জন্য এ ব্যবস্থা নিয়েছেন তিনি।


মন্তব্য