kalerkantho


এইচটিসি ডিজায়ার ১০ প্রো: মাঝারি বাজেটে দারুণ স্পেসিফিকেশন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:০৮



এইচটিসি ডিজায়ার ১০ প্রো: মাঝারি বাজেটে দারুণ স্পেসিফিকেশন

মধ্যম বাজেটের স্মার্টফোনে দুর্দান্ত পারফরমেন্স দিয়েছে এইচটিসি। বেশ কয়েকটি ফোন রয়েছে এ তালিকায়।

সর্বসম্প্রতি যোগ হয়েছে ডিজায়ার ১০ প্রো মডেলটি। এই স্মার্টফোনের ডিজাইন আর ক্যামেরার ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছে নির্মাতা।

মাঝারি দামের স্মার্টফোনগুলো মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে মটোরোলার মটো জেড প্লে, আসুস জেনফোন ৩ এবং ওয়ানপ্লাস ৩ ও ৩টি। বিশেষজ্ঞদের বিচারে, কম বা বেশি নয়, মাঝামাঝি দামের ফোনগুলোর মধ্যে গোটা বিশ্বে এগুলোই সেরা মানের। আর বাজারে এদের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করতেই এইচটিসি বানিয়েছে ডিজয়ার ১০ প্রো। একপলক দেখলেই একে প্রিমিয়াম কোনো ফোন বলেই মনে হবে। নজরকাড়া জিজাইনের সঙ্গে পারফরমেন্স তো রয়েছেই।

উন্নতমানের দেহ বানাতে বেশ মনোযোগ ঢেলেছে নির্মাতা। মেটাল বডির ফোনটি হাতে নিলে দারুণ অনুভূতি সৃষ্টি হয়।

আরামের সঙ্গে হাতে এঁটে যায়। গোটা দেহের কিনারা দিয়ে স্বর্ণালী কাজ একে অভিজাত বানিয়েছে। এর ক্যামেরার ডিজাইন এবং পেছনের অংশ আকর্ষণীয় লুক দিয়েছে।

উন্নতমানের ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ৫.৫ ইঞ্চি আইপিএস প্যানেলের কালার এবং কনট্রাস্ট পছন্দ না হয়ে যায় না। ফুল-এইচডি রেজ্যুলেশন উন্নত পিক্সেল নিশ্চিত করেছে। পর্দাটিকে নিরাপত্তা দিচ্ছে গরিলা গ্লাস।

ডিজায়ার ১০ প্রো-তে দেওয়া হয়েছে হাইব্রিড সিম স্লট। মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহার করে ২ টেরাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ মিলবে। পেছনে ক্যামেরা দেহ থেকে একটু সামনে বেরিয়ে এসেছে। এলইডি ফ্ল্যাশ এবং লেজার অটোফোকাস রয়েছে নিচেই। পেছনেই রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। সেলফি তোলার কাজেও এই বোতাম ব্যবহার করা যাবে।

অক্টা-কোর মিডিয়াটেক হেলিও পি১০  এসওসি প্রসেসরে দুর্দান্ত শক্তি জোগাবে ৪ জিবি র‍্যাম। অভ্যন্তরে রয়েছে ৬৪ জিবি স্টোরেজ।

অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শমেলোতে যোগ করা হয়েছে এইচটিসি সেন্স প্রযুক্তি। এতে নির্মাতার কিছু নিজস্ব অ্যাপ মিলবে।

পেছনের ক্যামেরায় ২০ মেগাপিক্সেল সেন্সর দেওয়া হয়েছে। লেজার অটোফোকাসের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে এফ/২.২ অ্যাপারচার লেন্স। সামনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। দুটোতেই অটো এইচডিআর মোড এবং ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ডিং প্রযুক্তি রয়েছে। ছবির মান অসাধারণ!

ব্যাটারি খোলা যাবে না। স্বাভাবিক ব্যবহারে গোটা দিন সচল থাকবে এর ৩০০০এমএএইচ শক্তির ব্যাটারি। একবার চার্জ দিলেই একদিন নিশ্চিন্ত। ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তিও দিতে ভুল করেনি এইচটিসি। টাইপ সি-ইউএসবির মাধ্যমে যোগ হয়েছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি। বাংলাদেশের বাজারে দামের হেরফের পেতে পারেন। তবে ৩০ হাজার থেকে ৩২ হাজারের মধ্যে মিলবে অনন্য এই স্মার্টফোন। ভারতীয় বাজারে এর দাম ২৬৪৭০ রুপি। সূত্র: এনডিটিভি  

 


মন্তব্য